অধিনায়কত্বে প্রচুর গলদ রয়েছে এবার রাহুলের দিকে তীর ছুড়লেন গম্ভীর

দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে প্রথম একদিনের ম্যাচে টিম ইন্ডিয়ার হারের পর ভারতীয় বোলারদের পাশেই দাঁড়ালেন প্রাক্তন ওপেনার গৌতম গম্ভীর। বৃহস্পতিবার গম্ভীর স্পষ্ট বলে দেন, ‘আমার মনে হয় না, ভারতীয় বোলাররা খারাপ বল করেছে।

কখনও কখনও বিপক্ষের ব্যাটারদেরও প্রশংসা করতে হয়। আর প্রোটিয়া অধিনায়ক বাভুমা দারুণ ফর্মে রয়েছে এখন। তাই ওর জন্য কোনও প্রশংসাই যথেষ্ট নয়। দলের ব্যাটিংকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিল। ডি কক, মারক্রামের মত বড়ো নাম থাকতেও কোনও ভয়ই পেলো না।’

এরপরে রাহুলের ফিল্ডিং সাজানো নিয়ে প্রশ্ন তোলেন গম্ভীর। তিনি বলেন, ‘একদিনের ক্রিকেটে অতি আক্রমণাত্মক ফিল্ডিং আমি খুব বেশি একটা পছন্দ করি না। কিন্তু চাহাল যখন মারক্রামকে বল করতে এল, তখন ভেবেছিলাম রাহুল হয়তো স্লিপ কিংবা একটা গালি পয়েন্ট রাখবে! কিন্তু সেটা হল না।

আর যখন অশ্বিন বল করছে তখন লেগ স্লিপ সরিয়ে নিয়ে লেগ গালি কিন্তু রাখতে পারত। বোলারদের সঙ্গে ভালো করে কথা বলে রাহুল যদি ফিল্ডিংটা সাজাত, তাহলে আমার মনে হয় না যে দক্ষিণ আফ্রিকা এত রান তুলত বলে।’

টেম্বা বাভুমা ও ভ্যান ডার ডুসেনের ২০০ রানের পার্টনারশিপই দক্ষিণ আফ্রিকার ভিতটা মজবুত করে দেয়। জোড়া শতরান করেন এই দুই প্রোটিয়া ব্যাটার। বাভুমা করেন ১১০ রান এবং ভ্যান ডার ডুসেন অপরাজিত থাকেন ১২৯ রানে। নির্ধারিত ৫০ ওভারে দক্ষিণ আফ্রিকা করে ২৯৭ রান।

গম্ভীর আরও যোগ করেছেন, ভারতের শক্তি নিহিত আছে তাদের টেস্ট দলে এবং সাদা বলের ফরম্য়াটে তাদের এখনও বেশ কিছু সমস্যার সমাধান করতে হবে। পাশাপাশি গম্ভীর ভারতের বোলিংয়েরও যথেষ্ট প্রশংসা করেছেন। সীমিত ওভারের ফরম্য়াটে আরও একটি স্থিতধী মিডল অর্ডারের জন্য আহ্বান জানিয়েছেন।

শেষকালে অধিনায়ক বিরাট কোহলিকে নিয়ে যথেষ্ট প্রশংসা করেন গৌতম গম্ভীর। তিনি বললেন, ‘টেস্ট ক্রিকেটে বিরাট অধিনায়কত্ব ছেড়ে দেওয়ার পর একটা ফাঁক তৈরি হয়েছে। তবে এটা একজন ক্রিকেটারের ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত। সেটাকে মেনে নেওয়া উচিত।

তবে সীমিত ওভারের ক্রিকেটে এই কথাটা একেবারেই মেনে নেওয়া যায় না।’ বুধবার ভারতীয় ক্রিকেট দলের হয়ে একদিনের ফরম্যাটে প্রথমবার অধিনায়কত্ব করলেন কে এল রাহুল। তবে শুরুটা যে একেবারে সুখকর হল না, তা বলা যেতেই পারে।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *