আইপিএল ২০২২ মেগা নিলামে আকাশছোঁয়া মূল্যে ভারতীয় ৩ ক্রিকেটার

দুটি দল নতুনভাবে আইপিএল লিগে সংযোজন হওয়ায় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড পুরনো ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোকেও নতুন রূপে সাজানোর অনুমতি দিয়েছে। যার প্রক্রিয়া ইতিমধ্যে শুরু হয়ে গেছে।

আইপিএল ২০২২-এর মেগা নিলাম অনুষ্ঠিত হবে ফেব্রুয়ারির ৭ও৮ তারিখ বেঙ্গালুরু শহরে। তাই প্রত্যেকটি ফ্র্যাঞ্চাইজি এখন মরিয়া হয়ে রয়েছে সেরা ক্রিকেটার কিনে নেওয়ার জন্য।

আসন্ন আইপিএল ২০২২ হতে চলেছে একটু ভিন্ন স্বাদের। চেনা পরিচিত মুখগুলো পরস্পর বিরোধী দলের হয়ে খেলতে দেখা যাবে। অর্থাৎ ২০২২-এ অনুষ্ঠিত হবে আইপিএলের মেগা অকশন।

দুটি দল নতুনভাবে আইপিএল লিগে সংযোজন হওয়ায় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড পুরনো ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোকেও নতুন রূপে সাজানোর অনুমতি দিয়েছে।

যার প্রক্রিয়া ইতিমধ্যে শুরু হয়ে গেছে। আইপিএল ২০২২-এর মেগা নিলাম অনুষ্ঠিত হবে ফেব্রুয়ারির ৭ও৮ তারিখ বেঙ্গালুরু শহরে। তাই প্রত্যেকটি ফ্র্যাঞ্চাইজি এখন মরিয়া হয়ে রয়েছে সেরা ক্রিকেটার কিনে নেওয়ার জন্য। আইপিএল ২০২২-এ আকাশছোঁয়া মূল্য পেতে পারেন ভারতীয় এই তিন ক্রিকেটার-

১. শিখর ধাওয়ান: বর্তমানে ভারতীয় ক্রিকেটের সবচেয়ে অভিজ্ঞ ক্রিকেটারদের তালিকায় রয়েছেন শিখর ধাওয়ান। ভারতীয় প্রিমিয়ার লিগে ইতিপূর্বে তিনি দিল্লি ক্যাপিটালস-এর জার্সি গায়ে মাঠে নামতেন।

বিগত মরশুমে দুর্দান্ত ফর্মে ছিলেন শিখর ধাওয়ান। ধাওয়ান দিল্লির হয়ে বিগত তিন মরশুমে ৫২১, ৬১৮ ও ৫৮৭ রান করেছেন। শিখর ধাওয়ান ভারতীয় প্রিমিয়ার লিগে ১৯২টি ম্যাচ খেলে ৫৭৮৪ রান সংগ্রহ করেছেন।

করেছেন জোড়া সেঞ্চুরি। রয়েছে ৪৪টি ফিফটিও। মেগা অকশনে তাকে দলে নিতে যে কোন দল আকাশছোঁয়া মূল্য দেবে তাতে কোন সন্দেহ নেই।

২. হার্সেল প্যাটেল: গেল আইপিএলে স্বপ্নের ফর্মে ছিলেন ভারতীয় ক্রিকেটার হার্সেল প্যাটেল। রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের জার্সিতে চলতি বছর আইপিএলে ফুল ফুটিয়েছেন তিনি।

১৫ ম্যাচে ৩২ উইকেট নিয়ে মাথায় তুলেছিলেন পার্পেল ক্যাপ। ওয়েস্ট ইন্ডিজের ডোয়েন ব্র্যাভোর সঙ্গে যুগ্ম ভাবে আইপিএলের একটি আসরে সর্বোচ্চ উইকেট নেওয়ার নজির গড়েন আহমেদাবাদের বছর তিরিশের জোরে বোলার।

তাছাড়া আইপিএলে প্রত্যেকটি ম্যাচে উইকেট তুলে নিয়ে নয়া নজির করেছিলেন হার্সেল প্যাটেল। ব্যাঙ্গালোর শিবির তাকে ছেড়ে দিলেও প্রত্যেকটি ফ্র্যাঞ্চাইজি তার জন্য সর্বোচ্চ লড়াইকরবে মেগা অকশনে।

৩. মনিশ পান্ডে: ইতিপূর্বে মনিশ পান্ডে সানরাইজ হায়দ্রাবাদের জন্য মাঠে নামতেন। মিডল অর্ডারে দলের জন্য রান সংগ্রহ করার ক্ষমতা রয়েছে এই ব্যাটসম্যানের।

আইপিএলের প্রথম সেঞ্চুরিকারী ভারতীয় ক্রিকেটার হিসাবে নিজের নাম ইতিহাসে লিখিয়েছেন মণীশ। ঘরোয়া ক্রিকেটে তিনি কর্ণাটকের হয়ে অধিনায়কত্ব করেছেন রঞ্জি ট্রফি ও সৈয়দ মুস্তাক আলি ট্রফিতে।

বছর বত্রিশের মিডল অর্ডার ব্যাটার মনিশ পান্ডে এখনও পর্যন্ত ১৫৪টি আইপিএল ম্যাচে ৩৫৬০ রান করেছেন। যদিও বিগত বছর তার ব্যাট থেকে খরা গেছে।

তাই অফ ফর্মে থাকার শর্তেও আকাশছোঁয়া মূল্যে আইপিএল নিলামে বিক্রি হবেন তিনি এমনটাই মনে করছেন ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *