এই ক্রিকেটারের কারণে শেষ হয়ে যাচ্ছে হার্দিক পান্ডিয়ার ক্যারিয়ার

হার্দিক হিমাংশু পান্ডিয়া হলেন একজন ভারতীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার। তিনি ঘরোয়া ক্রিকেটে বরোদা ক্রিকেট দলের হয়ে এবং ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে মুম্বই ইন্ডিয়ানসের হয়ে ক্রিকেট খেলেন।

অল-রাউন্ডার হার্দিক ব্যাটিং করেন ডান হাতে এবং ডান হাতেই ফাস্ট মিডিয়াম বোলিং করেন। তিনি ক্রিকেটার ক্রুনাল পাণ্ড্য ছোটো ভাই।

ভারতীয় দলের তারকা অলরাউন্ডার হার্দিক পান্ডিয়া বেশ কিছুসময় ধরে তার কেরিয়ারের সবচেয়ে খারাপ ফর্মের মধ্য দিয়ে যাচ্ছেন। টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর থেকে দলে দেখা যায়নি হার্দিককে।

তার ফিটনেস তার কেরিয়ারের অগ্রগতির জন্য একটি বড় সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। ব্যাট এবং বল দুটি বিভাগেই সমস্যায় ভুগতে দেখা গেছে হার্দিককে।

তাই আপাতত বেঙ্গালুরুর জাতীয় একাডেমিতে রিহ্যাব সাড়ছেন তিনি। এই অবস্থায় বড় প্রশ্ন ছিল হার্দিকের জায়গায় কোন ক্রিকেটার তার অভাব পূরণ করতে পারবেন?

দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে শার্দুল ঠাকুর ভারতীয় দলে অলরাউন্ডারের ভূমিকা ভালোভাবেই পালন করছেন। শার্দুলকে প্রথমে শুধু তার বোলিংয়ের জন্য দলে নেওয়া হলেও প্রথমে অস্ট্রেলিয়া,

তারপর ইংল্যান্ড এবং এখন দক্ষিণ আফ্রিকায় ব্যাট হাতে ভদ্রস্থ পারফরম্যান্স করে দেখিয়েছেন তিনি। শার্দুল অনেকটাই হার্দিকের অভাব পূরণ করতে পেরেছেন। বল হাতেও নিজের বাকি সতীর্থদের ছাপিয়ে যেতে পারেন তিনি।

ভারতের বিপক্ষে প্রথম ইনিংসে ২২৯ রানে অলআউট হয়ে যায় দক্ষিণ আফ্রিকার পুরো দল। সেই ইনিংসে দুর্দান্ত বোলিং করে ৬১ রানে ৭ উইকেট নেন শার্দুল ঠাকুর।

তার সামনে দাঁড়াতে পারেননি দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটসম্যানরা। শার্দুলের সুইং বল ঝড় তুলেছিল ম্যাচ। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সবচেয়ে কম রানে ৭ উইকেট নেওয়া বোলার হয়েছেন শার্দুল ঠাকুর।

ম্যাচে দিয়েছেন ৬১ রান। শার্দুলের আগে নাগপুরে আফ্রিকান দলের বিপক্ষে ৬৬ রানে ৭ উইকেট নিয়েছিলেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন।

শার্দুল ঠাকুর এখন ঘরের মাঠে এবং দক্ষিণ আফ্রিকা মিলিয়ে পারফর্ম করা সেরা ভারতীয় বোলার হয়ে উঠেছেন। এনবিংশ শতাব্দীতে, তিনি দক্ষিণ আফ্রিকার একজন বিদেশী বোলারের সেরা বোলিং ফিগারের রেকর্ড গড়েছেন।

আপাতত হার্দিকের অভাব অন্তত টেস্ট ফরম্যাটে ভুগতে হবে না ভারতীয় দলকে। তবে হার্দিক যে একেবারেই হারিয়ে গেলেন সেটা ভাবারও কোনও কারণ নেই।

হার্দিক সুস্থ হয়ে উঠলে ফের তাকে আগের ছন্দে দেখা যেতে পারে। তাই হার্দিক নিজেই একটি বড়
সিদ্ধান্ত নিয়েছেন এবং বিসিসিআইকে নিজেই বলেছেন যে ফিটনেসে ফিরতে তার কিছুটা সময় দরকার। ফলে বেশ কিছুদিন তাকে মাঠে দেখা যাবে না।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *