এই তিনটি কারণে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে হেরেছে ভারত, দাবি ক্রিকেট বিশ্লেষকদের

গতকাল দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ওডিআই সিরিজের প্রথম ম্যাচে মাঠে নেমেছিল ভারত। তবে প্রোটিয়াদের বিরুদ্ধে সিরিজের প্রথম ম্যাচে ৩১ রানের পরাজয় হজম করতে হয়েছে টিম ইন্ডিয়াকে।

ইতিপূর্বে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে ভারত ২-১ ব্যবধানে হেরেছে। ওডিআই সিরিজের প্রথম ম্যাচ হেরে ভারত ইতিমধ্যে ০-১ ব্যবধানে পিছিয়ে গিয়েছে প্রোটিয়াদের সামনে।

তবে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ওডিআই সিরিজের প্রথম ম্যাচে ভারতের পরাজয়ের পেছনে রয়েছে একাধিক কারণ। পর্যালোচনা করতে গিয়ে উঠে এসেছে তিনটি প্রধান কারণ, যার জন্য ভারতকে প্রথম ম্যাচে পরাজয় স্বীকার করতে হয়েছে। চলুন জেনে নেওয়া যাক-

১. ব্যাটিং ব্যর্থতা: ওপেনিং জুটিতে অধিনায়ক কে এল রাহুলের ধারাবাহিক ব্যর্থতা আজও অক্ষুন্ন ছিল। শিখর ধাওয়ানের সাথে ওপেন করতে নেমে ব্যক্তিগত ১২ রানে প্যাভিলিয়নে ফেরেন তিনি।

তাছাড়া মিডল অর্ডারে শ্রেয়াস আইয়ার এবং ঋষভ পন্থ চরমভাবে ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছেন। দলের জন্য অভিজ্ঞ ক্রিকেটার শ্রেয়াস আইয়ার ১৭ এবং ঋষভ পন্থ ব্যক্তিগত ১৬ রানের ইনিংস খেলেন। যেটি ভারতের ম্যাচ পরাজয়ের জন্য সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য কারণ ছিল।

২. স্পিনার ব্যর্থতা: ভারতীয় পেস বোলাররা প্রথমে প্রোটিয়া ব্যাটসম্যানদের বেঁধে রাখতে সক্ষম হলেও মধ্যভাগে স্পিনাররা ধারাবাহিকভাবে ব্যর্থ হয়েছেন। অভিজ্ঞ স্পিনার রবীচন্দ্রন অশ্বিন ব্যক্তিগত একটি উইকেট দখল করেন। অন্যদিকে চতুর চাহালের কোটা শূন্য। তাছাড়া বল হাতে অভিজ্ঞ ক্রিকেটার ভুবনেশ্বর কুমারও ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছেন।

৩. নেতৃত্বে ব্যর্থতা: অধিনায়কত্ব যে সবার জন্য নয়, সেটি আরও একবার প্রমাণ হয়েছে ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকার মধ্যকার ওডিআই সিরিজের প্রথম ম্যাচে। অধিনায়ক কে এল রাহুলের অক্ষমতা ভারতীয় দলের পরাজয়ের আরো একটি মূল কারণ।

ধারাবাহিক বোলিং পরিবর্তন ছাড়া অধিনায়কত্বে কোনরকম নিপুণতা দেখা যায়নি কে এল রাহুলের নিকট থেকে। ফলশ্রুতিতে দক্ষিণ আফ্রিকা প্রথমে ব্যাটিং করে মাত্র ২ উইকেট হারিয়ে ২৯৭ রানের বিশাল লক্ষ্যমাত্রা স্থির করতে সক্ষম হয়।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *