কপাল পুরতে পারে ভেঙ্কটেকের দলে ফিরতে পারে বিধ্বংসী এই ক্রিকেটার

দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে প্রথম ম্যাচেই হার। ঘুরে দাঁড়াতে হলে পার্লের দ্বিতীয় ম্যাচই একমাত্র সুযোগ লোকেশ রাহুলের ভারতের কাছে। সেই পরীক্ষায় নামার আগে দল গঠন নিয়েই যত চিন্তা ভারতীয় শিবিরে। প্রথম একাদশে যে বদল আসবে তা একপ্রকার স্পষ্ট।

কিন্তু কার জায়গায় কোন ক্রিকেটারকে খেলানো হবে, তা নিয়েই এখন জল্পনা তুঙ্গে। শোনা যাচ্ছে পার্লে দ্বিতীয় ম্যাচেই নাকি দলে আসতে পারেন সূর্যকুমার যাদব। তবে সেটা শ্রেয়স আইয়ার নাকি ভেঙ্কটেশ আইয়ারের জায়গায়, তা নিয়েই চলছে অঙ্ক কষা।

টেস্ট সিরিজে এগিয়ে থেকেও হারতে হয়েছে ভারতকে। প্রোটিয়াদের মাটিতে মানরক্ষা করতে হলে একদিনের সিরিজ জিততেই হবে লোকেশ রাহুল অ্যান্ড কো-কে। কিন্তু সেখানেও শুরুটা একেবারে ভাল করতে পারেনি ভারতীয় দল। প্রথম ম্যাচেই দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ৩১ রানে হেরে গিয়েছে টিম ইন্ডিয়া। আর সেই ম্যাচেও চূড়ান্ত ব্যর্থ ভারতের মিডল অর্ডার।

যা নিয়ে ম্যাচ চলাকালীনই শুরু হয়ে গিয়েছিল জোর সমালোচনা। এমনকী ম্যাচ শেষে লোকেশ রাহুল ও শিখর ধওয়ানদের মুখেও মিডল অর্ডারের ব্যর্থতার কথাই উঠে এসেছিল। আর সেই সমস্যা দূর করতেই এখন মিডল অর্ডার শক্তিশালী করার লক্ষ্যে ভারতীয় দল। আর সেই পথে হাঁটতে গেলে ভারতের হাতে এখন একমাত্র অপশন সূর্যকুমার যাদব। কিন্তু কার জায়গায় খেলানো হবে সূর্যকুমার যাদব। কারণ দ্বিতীয় ম্যাচ হেরে গেলেই সব শেষ।

মিডল অর্ডারের ব্যর্থতা রুখতে শ্রেয়স অথবা ভেঙ্কটেশের পরিবর্তে সূর্যকুমারকে খেলানোর ভাবনা
আর সূযকুমার কে খেলানোর জন্য দুজন ক্রিকেটারের কথাই ঘুরপাক খাচ্ছে বিভিন্ন মহলে। প্রথম ম্যাচেই চুড়ান্ত হয়েছেন শ্রেয়স আইয়ার এবং ভেঙ্কটেশ আইয়ার। আর তাদের মধ্যেই কোনও একজন ক্রিকেটারকে প্রথম একাদশে না দেখতে পাওয়ার সম্ভাবনা প্রবল। তবে ভেঙ্কটেশ আইয়ারেরই সম্ভাবনা বেশী না খেলার।

প্রথম ম্যাচে একসময় ভারতের ছিল ১ উইকেটে ১৩৮ রান। সেই জায়গা থেকে ধওয়ান ও কোহলি ফেরার পরই তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ে ভারতীয় দলের মিডল অর্ডার। রান পাননি শ্রেয়স আইয়ার, ঋষভ পন্থ থেকে ভেঙ্কটেশ আইয়াররা। সেই জায়গাটাই এখন মেরামতির কথা উঠতে শুরু করেছে। ভেঙ্কটেশ আইয়ারকে যখন খেলানো হয়েছিল, শোনা গিয়েছিল অলরাউন্ডার হিসাবে দলে রাখা হচ্ছে তাঁকে। এমনই যুক্তি দেওয়া হয়েছিল।

কিন্তু গোটা ম্যাচে এক বলও করতে দেখা যায়নি ভেঙ্কটেশকে। যেখানে চাহাল, অশ্বিনরা সেই সময় পরপর ব্যর্থ হচ্ছিলেন, তখনও ভেঙ্কটেশ আইয়ারকে বোলিংয়ে দেখা যায়নি। সেই সময়ই প্রশ্নটা তুলেছিলেন আকাশ চোপড়া। ভেঙ্কটেশ আইয়ারকে অল রাউন্ডার হিসাবে তবে নেওয়া হল কেন। ব্যাট হাতেও বড় রান পাননি তিনি। এরপর থেকেই অভিজ্ঞ সূর্যকুমার যাদবকে খেলানোর দাবী জোরালো হতে থাকে।

বিশেষ করে ভেঙ্কটেশের পরিবর্তেই তাঁকে খেলানোর কথা বলতে থাকেন সকলে। ভেঙ্কটেশ কে যদি স্পেশ্যালিস্ট ব্যাটার হিসাবে ব্যাটার হিসাবে দলে নেওয়া হয়, তবে সে জায়গায় অভিজ্ঞতার বিচারে সূর্যকেই খেলানো উচিত্ বলে মনে করছেন সকলে। ভারতীয় দলের হয়ে খেলার অভিজ্ঞতাও বেশী তাঁর। ভারতীয় দলের অন্দরেও শুরু হয়ে গিয়েছে এই নিয়ে হিসাব কষা। এখন শুধুই অপেক্ষার দ্বিতীয় একদিনেপ ম্যাচে ভারতীয় দলে কোন পরিবর্তনটা আসে।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *