“কারোর জুতোয় পা গলানোর লক্ষ্যে টিম ইন্ডিয়ায় খেলব না” ধোনিকে চরম অপমান করে বোমা ফাটালেন এই উদীয়মান ক্রিকেটার

মহেন্দ্র সিং ধোনী ঝাড়খণ্ডের রাঁচি এলাকায় জন্মগ্রহণকারী ভারতীয় ক্রিকেটার। মহেন্দ্র সিং ধোনীর অধিনায়কত্বে ভারত ২০০৭ আইসিসি বিশ্ব টোয়েন্টি২০, ২০০৭-০৮ সালের সিবি সিরিজ,

২০০৮ সালের বর্ডার-গাভাস্কার ট্রফি, ২০১০ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ২-০ ব্যবধানে একটি সিরিজ ও ২০১১ ক্রিকেট বিশ্বকাপ জয় করেছে।

মহেন্দ্র সিং ধোনি টিম ইন্ডিয়ার ফিনিশারের দায়িত্ব সামলেছেন এক দশকের বেশি সময় ধরে। তবে তিনি এখন অবসরের গ্রহে। ধোনির পরে টিম ইন্ডিয়া এখনও পারফেক্ট ফিনিশারের সন্ধান পায়নি। তবে জাতীয় দলে কিছুদিন আগে সুযোগ পাওয়া ভেঙ্কটেশ আইয়ার মনে করছেন,

তাঁকে হয়ত মহেন্দ্র সিং ধোনির ফিনিশারের জুতোয় পা গলাতে হবে। আইপিএলের আমিরশাহি পর্বে রকেট গতিতে উত্থান ঘটেছে ভেঙ্কটেশ আইয়ারের। শুরু থেকে হৈচৈ ঘটিয়ে ফেলেছেন তারকা।

নাইটদের জার্সিতে দুরন্ত পারফর্ম করে ভেঙ্কটেশ শেষমেষ টিম ইন্ডিয়ার জার্সিতে অভিষেক ঘটিয়েছেন ঘরের মাঠে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে টি২০ সিরিজে। সেই সিরিজে ব্ল্যাক ক্যাপসদের পর্যদস্ত করে জিতেছিল দ্রাবিড়ের ভারত।

টি২০ সিরিজ খেলে ঘরোয়া ক্রিকেটে বিজয় হাজারেতেও ধুন্ধুমার পারফর্ম করেছেন নাইট তারকা। সেই পারফরম্যান্স দেখেই জাতীয় নির্বাচকরা এবার দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ওয়ানডে সিরিজেও দলে জায়গা দিয়েছেন তাঁকে।

দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের রওনা দেওয়ার আগেই টাইমস উড ইন্ডিয়া-কে ভেঙ্কটেশ আইয়ার জানিয়ে দিয়েছেন, “দীর্ঘদিন ধরে মিডল অর্ডারে ব্যাট করেছি। এমনকি বিজয় হাজারেতে মধ্যপ্রদেশের হয়ে।

শেষ দু বছর ধরে ওপেনও করতে হয়েছে। তাই ব্যাটিং অর্ডারের অদল বদল আমার কাছে মোটেই নতুন নয়। আমি ধরেই নিয়েছি, জাতীয় দলের হয়ে আমাকে ফিনিশারের দায়িত্ব সামলাতে হবে।

সেটা করতে আমি প্রস্তুত। সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ হল, নিজের মনকে যেকোনও পরিস্থিতির জন্য তৈরি রাখা।” ধোনির অবসরের পরে হার্দিক পান্ডিয়াকে ফিনিশার কাম অলরাউন্ডারের ভূমিকায় ভাবা হয়েছিল।

তবে তবে চোটে জর্জরিত হয়ে হার্দিক পান্ডিয়া এখন জাতীয় দলের চৌহদ্দির বাইরে। হার্দিকও টিম ইন্ডিয়ায় কামব্যাকের জন্য নিজেকে প্রস্তুত করছেন। যদিও তা নিয়ে ভাবছেন না ভেঙ্কটেশ আইয়ার।

তিনি জানিয়েছেন, “কারোর জুতোয় পা গলানোর লক্ষ্য নিয়ে টিম ইন্ডিয়ায় খেলব না। জাতীয় দলের জয়ে অবদান রাখাই আমার প্রাথমিক লক্ষ্য। কারোর অনুপস্থিতিতে দলে জায়গা পেয়েছি। সে ফিরে আসতে পারে- এমনটা মোটেই ভাবছি না।

এমন চিন্তাভাবনা নিয়ে অন্তত। ব্যাট-বল করার দক্ষতার কারণেই দলে জায়গা পেয়েছি। আইপিএলে যেমন ওপেন করি, তেমন মধ্যপ্রদেশ দলেও ইনিংসের শুরুতে ব্যাট করেছি। তবে জাতীয় দলে আমার ভূমিকা ফিনিশারের হতে চলেছে।”

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *