কোহলিকে নিয়ে কথা বলে সীমা অতিক্রম করেছেন সৌরভ – ভারতের সাবেক অধিনায়ক

বিরাট কোহলিকে ঘিরে অধিনায়কত্ব নিয়ে বিতর্ক খুব সহজে থেমে যাবে বলে মনে হচ্ছে না। প্রায় প্রতিদিনই নতুন কেউ না কেউ নিজেদের দৃষ্টিকোণ থেকে ব্যাপারটি নিয়ে কথা বলছেন। কপিল দেব, সুনীল গাভাস্কাররা বিষয়টি নিয়ে বলেছেন,

এবার বললেন ভারতের আরেক সাবেক অধিনায়ক দিলীপ ভেংসরকার। তিনি মনে করেন, কোহলি ইস্যুতে সৌরভের কথা বলাই উচিত হয়নি। ভেংসরকার কেবল সাবেক অধিনায়কই নন, তিনি ভারতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক প্রধান নির্বাচকও।

তাঁর মতে, কোহলিকে যখন সরিয়েই দেওয়া হলো, তখন সেই ব্যাখ্যা দেওয়া উচিত ছিল প্রধান নির্বাচক চেতন শর্মার। বোর্ড সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলীর এখানে ঢোকাই উচিত হয়নি,

‘সৌরভ কথা বলায় বিষয়টি জটিল হয়ে গেছে আরও। এমনিতেই কোহলির মনে প্রশ্ন জাগা স্বাভাবিক যে ওকে ওয়ানডের অধিনায়কত্ব থেকে সরানো হলো, অথচ কিছুই বলা হলো না।

ব্যাখ্যাটা চেতন শর্মা দিলেই পারতেন। কিন্তু সৌরভ কথা বলায় এতে জটিলতা তৈরি হয়েছে।’ ভারতীয় ক্রিকেটে এমন ঘটনা মোটেও মেনে নিতে পারছেন না ভেংসরকার। এটাকে ভবিষ্যতের জন্য শিক্ষা বানিয়ে এমন কিছু যেন আর না ঘটে,

সে ব্যাপারে সতর্ক থাকার পরামর্শ সাবেক ভারতীয় অধিনায়কের, ‘এটা খুবই অপ্রত্যাশিত ব্যাপার ভারতীয় ক্রিকেটে। গোটা বিষয়েই ছিল অপেশাদারির ছাপ।

সুন্দর করে সামলানো যেত পুরো বিষয়। কোহলিকে কেন ওয়ানডে দলের অধিনায়কত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হলো, এ বিষয়ে তো প্রধান নির্বাচক কথা বলবে। সৌরভের এখানে ঢোকা উচিত হয়নি। এটার তো কোনো প্রয়োজনই ছিল না।’

সৌরভের কথা নিজের কর্মসীমার বাইরে গিয়েই বলে মনে করেন ভেংসরকার, ‘সৌরভ বোর্ড সভাপতি। একজন অধিনায়কের থাকা না–থাকা নিয়ে কথা বলা তাঁকে মানায় না।

আমি মনে করি, সৌরভ সীমার বাইরে গেছে, এটা ঠিক হয়নি।’ কোহলির আরও অনেক বেশি সম্মান প্রাপ্য ছিল বলেই মত ভেংসরকারের, ‘ভারতীয় ক্রিকেটে কোহলির অবদান ছোট করে দেখার কিছু নেই। আমি তো মনে করি সৌরভ কথা বলাতেই কোহলির আঁতে ঘা লেগেছে,

তাই নিজের মতো করে নিজের বক্তব্য সবাইকে জানাতে চেয়েছে। আমি খুব করেই চাই কোহলির সঙ্গে যেন বোর্ডের সম্পর্কটা আগের মতোই ভালো হয়ে যায়।’

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *