জাতীয় দলের বাইরে থেকে, দলের ক্রিকেটারকে নিয়ে বিস্ফোরক করলেন দীনেশ কার্তিক

নিউ জিল্যান্ডের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজ জয়ের পরে এবার দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজ। এখনও দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের জন্য দল ঘোষণা করেনি দলে কারা সুযোগ পাবে তা নিয়ে জল্পনা চলছে।

কারণ, রাহুল দ্রাবিড়ের আমলে এই প্রথম বিদেশ সফরে যাচ্ছে ভারত। ফলে তিনি কী ভাবে দলকে পরিচালনা করবেন তা দেখতে মুখিয়ে রয়েছেন সমর্থকরা। আগামী ২৬ ডিসেম্বর থেকে শুরু হবে টেস্ট সিরিজ।

সেঞ্চুরিয়নে হবে প্রথম টেস্ট। তার আগে দল গঠন গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন তুলে দিলেন দীনেশ কার্তিক। তিনি দলে হনুমা বিহারির অন্তর্ভু্ক্তি নিয়ে প্রশ্ন তুললেন। তাঁর মতে, বেশি পরীক্ষানিরীক্ষায় যাবেন না রাহুল দ্রাবিড়।

পরীক্ষিত পথেই হাঁটবেন ভারতীয় দলের হেড স্যার। এমনটাই মনে করেন কার্তিক।

একটি সংস্থাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে দীনেশ কার্তিক জানান, নিউ জিল্যান্ড সিরিজে সুযোগ না পাওয়ায় হনুমা বিহারির জন্য হতাশাজনক। শেষে তাঁকে ভারতের এ দলের হয়ে পাঠানো হয় দক্ষিণ আফ্রিকায়।

যেটা জাতীয় দলে নিজের জায়গা পাকা করার জন্য যথেষ্ট নয় বলে মনে করেন কার্তিক। বলেন, ‘কেএল রাহুল, রোহিত শর্মা ও ময়ঙ্ক আগরওয়ালরা ওপেনিং করবে। এরপর পূজারা, রাহানে ও কোহলি। তারপর থাকবে শ্রেয়স আইয়ার, শুভমন গিল। এঁদের মধ্যে হনুমা বিহারিকে কোথায় জায়গা দেবে? ও দলে সুযোগ পাওয়ার যোগ্য।

কিন্তু, যে দল ভারতের A হয়ে খেলেছে সেখান থেকে কেউ মেইন দলে ঢুকতে পারবে কি না তা নিয়ে সন্দেহ আছে। কারণ সবাই নিজের জায়গা ধরে রাখার জন্য যথেষ্ট ভালো খেলেছে।

যা এড়িয়ে যাওয়া যাবে না। কানপুর ও মুম্বইয়ের মত পিচে ভালো খেলেছে। যা প্রশংসনীয়। এদের মধ্যে বিহারি কোথায় জায়গা পাবেন সেটি প্রশ্ন।’

নিউ জিল্যান্ড সিরিজে কেএল রাহুলের জায়গায় বিহারিকে রাখা যেত বলে মনে করেন কার্তিক। তাঁর বদলে শ্রেয়স আইয়ারকে সুযোগ দেওয়া হয়। অভিষেক টেস্টেই যিনি শতরান করেছেন। মিডল অর্ডারে শুভমন গিলের কাছেও বিহারিকে কড়া লড়াইয়ের মধ্যে পড়তে হবে। কারণ, শুভমন মিডল অর্ডার ব্যাটার।

কার্তিকের মতে, রাহানের জায়গাও টলমল দলে। কানপুর টেস্টে রাহানে ৩৫ ও চার রান করেছিলেন। গত ১৬ ম্যাচে রাহানের গড় ২৪.৩৯। কিন্তু, রাহুল দ্রাবিড় পূজারা ও রাহানে জুটিকে নিয়েই এগিয়ে যাবেন বলে মনে করেন কার্তিক। তবে মিডল অর্ডারে পরিবর্তন করতে পারেন তিনি।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *