দায়িত্ব পেয়েই অবহেলিত সেই ক্রিকেটারের ভাগ্য খুলে দিলেন রাহুল দ্রাবিড়

টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পরে ভারতীয় দলের কোচের পদ থেকে ইস্তফা দেন রবি শাস্ত্রী। এরপর ভারতীয় ক্রিকেট দলের কোচিংয়ের দায়িত্ব পান রাহুল দ্রাবিড়। এখানে বলে রাখা ভালো যে ২০২৩ বিশ্বকাপ পর্যন্ত দ্রাবিড় ভারতীয় দলের কোচ হিসাবে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন।

দ্রাবিড়ের কোচ হিসেবে নিযুক্ত হওয়ার পরে, সবচেয়ে বড় আশা হল তিনি দলকে আরও একবার আইসিসি ট্রফি জিততে সাহায্য করবেন। সেই সঙ্গে আরও অনেক ক্রিকেটারের কেরিয়ারও তৈরি হবে বলে আশা করছেন।

দলে এমন একজন খেলোয়াড়ও রয়েছেন যাকে রাহুল দ্রাবিড় কোচ হওয়ার পরই টেস্ট দলে সুযোগ দেওয়া হয়েছিল এবং তিনি এখন এই দলের স্থায়ী সদস্য হয়েছেন। এখানে বলা হচ্ছে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্টের নায়ক শ্রেয়স আইয়ারের কথা।

নিউজিল্যান্ড সিরিজের আগে তাকে ভারতীয় টেস্ট দলে সুযোগ দেওয়া হয়নি। এই সিরিজে প্রথমবারের মতো ভারতীয় দলের স্থায়ী কোচ করা হয়েছে রাহুল দ্রাবিড়কে।

আইয়ার দ্রাবিড়ের কোচিংয়ে পারফরম্যান্স করে দেখানোর এই সুযোগ হাতছাড়া করেননি এবং এখন দক্ষিণ আফ্রিকা সফরেও তার কাছ থেকে অনেক আশা রয়েছে ক্রিকেটপ্রেমীদের।

এর আগে স্কোয়াডে থাকলেও টেস্ট খেলার সুযোগ পাননি আইয়ার। এই সুযোগের পুরো সদ্ব্যবহার করে তিনি অভিষেক ম্যাচের প্রথম ইনিংসে সেঞ্চুরি এবং দ্বিতীয় ইনিংসে হাফ সেঞ্চুরি করেন আইয়ার।

নিউজিল্যান্ড সিরিজের সময় কোচ দ্রাবিড়ও এই তরুণ ক্রিকেটারের প্রতি অনেক মনোযোগ দিয়েছিলেন। এ ছাড়া অনেকবার আইয়ারকে দায়িত্বজ্ঞানহীন শটের জন্য মৃদু তিরস্কারও করেছেন দ্রাবিড়।

আইয়ারের গত সিরিজের পারফরম্যান্স থেকে একটা বিষয় স্পষ্ট যে এখন তিনি দীর্ঘদিন টেস্ট দলে থাকতে চলেছেন।

শ্রেয়াস আইয়ার এখন ৫ নম্বর সবচেয়ে বড় ভরসা। মাত্র একটি সিরিজের পারফরম্যান্সে তিনি দল থেকে অজিঙ্কা রাহানের মতো অভিজ্ঞ তারকাকে পেছনে ফেলে দিয়েছেন।

রাহানে চূড়ান্ত অফফর্মের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছিলেন। তাই আইয়ারের কাজ আরও সহজ হয়েছে। দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে বিদেশের মাটিতে নিজের যোগ্যতা প্রমান করতে মরিয়া থাকবেন তিনি।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *