দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর দলে ফিরে অসাধারণ এক ইনিংস খেলে নির্বাচকদের চোখে আঙ্গুল দিলেন শিখর ধাওয়ান

টেস্ট সিরিজ শেষে ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকার ওয়ান ডে সিরিজ শুরু হয়ে গেলেও টিম ইন্ডিয়ার ব্যাটিং ব্যর্থতা অব্যাহত। পার্লে প্রথম ওয়ান ডেতে ৩১ রানে পরাজিত হয়ে সিরিজে পিছিয়ে পড়ল ভারতীয় দল। তবে ব্যাটিং ব্যর্থতা ঢাকতে শিখর ধাওয়ানের যুক্তি শুনলে তাজ্জব হতে হয়।

বিরাট কোহলি এবং ধাওয়ানের পার্টনারশিপের দৌলতে এক সময় মনে হচ্ছিল ভারতীয় দল হেসে খেলে রান তাড়া করতে সক্ষম হবে। কিন্তু ধাওয়ান ৭৯ এবং কোহলি ৫১ রানে আউট হওয়ার পরেই ব্যাটিং ভরাডুবি।

গোটা ভারতীয় মিডল অর্ডার সম্পূর্ণরূপে ব্যর্থ। নবম উইকেটে বুমরাহ এবং শার্দুল ঠাকুরের ৫১ রানের পার্টনারশিপ না হলে, দলের স্কোর আরও লজ্জাজনক হতে পারত। কিন্তু ধাওয়ানের মতে ২০২৩ বিশ্বকাপের উদ্দেশ্যে তৈরি করা ভারতীয় দলে মাঝেসাঝে ব্যর্থতা খুবই স্বাভাবিক।

ম্যাচ শেষে সাংবাদিক সম্মেলনে ভারতীয় ওপেনার দাবি করেন, ‘আমরা এখন থেকেই ২০২৩ বিশ্বকাপের কথা ভেবে দল তৈরি করছি। সে কারণে মাঝেসাঝে দল ব্যর্থ হতে পারেই, যা খুবই স্বাভাবিক।

দলগতভাবে আমরা সবসময় নিজেদের কী ভাবে উন্নতি করা যায়, সেই বিষয়ই ভাবি। সকলেরই একটা সুস্পষ্ট ধারণা রয়েছে যে আমাদের (বিশ্বকাপের জন্য) দলে এই ক্রিকেটাররা থাকবে এবং এদের যাতে উন্নতি ঘটে, সেই দিকটা আমাদের দেখতে হবে।’

ধাওয়ানের আরও দাবি, দলের নতুন সীমিত ওভার অধিনায়ক রোহিত শর্মা ফিরলেই দলের মিডল অর্ডার আরও মজবুত হবে। ‘এই দলে রোহিত নেই। ও ফিরলে দলের অভিজ্ঞতা বাড়বে এবং মিডল অর্ডারও আরও মজবুত হবে।

এই সিরিজে যে তরুণ ক্রিকেটাররা দলে সুযোগ পাচ্ছে, তারা এই অভিজ্ঞতা থেকে অনেক কিছু শিখবে। একটা ম্যাচে কোনো পরিকল্পনা না খাটলেও চিন্তা নেই। আমাদের আসল লক্ষ্য এর থেকে অনেক বড় এবং সেইদিকেই আমরা বেশি নজর দিচ্ছি।’ জানান ধাওয়ান।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *