নির্বাচকদের পাশাপাশি দিনের পর দিন ভয়ংকর এই তারকাকে উপেক্ষা করতে ব্যস্ত অধিনায়কও

T20 বিশ্বকাপের জন্য বর্তমানে 3 মাস বাকি আছে এবং টিম ইন্ডিয়া এই টুর্নামেন্টের জন্য দ্বিগুণ প্রস্তুতিতে নিযুক্ত রয়েছে। তবে ওপেনিং জুটি বদলানোর পাশাপাশি অধিনায়ক রোহিত শর্মা এবং দলের নির্বাচকরাও অনেক তরুণ-প্রবীণ খেলোয়াড়কে নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করছেন।

ইংল্যান্ড সিরিজে ওপেনিং জুটি হিসেবে ঋষভ পন্তের পর সূর্যকুমার যাদবকে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজে ওপেনিংয়ের জন্য প্রস্তুত করা হচ্ছে, কিন্তু এই সময়ে একজন ওপেনিং প্লেয়ার বেঞ্চে বসে সময় কাটাচ্ছেন।

ইংল্যান্ড সফরে ঋষভ পন্ত এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজে সূর্যকুমারকে উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান হিসেবে ব্যবহার করা হলেও এই সময়ে দলের বিস্ফোরক ওপেনিং ব্যাটসম্যান ইশান কিষাণকে পুরোপুরি উপেক্ষা করা হচ্ছে। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ইশান কিষানের ব্যাট থেকে মাত্র ৮ রান আসে, এরপরই তাকে প্লেয়িং ইলেভেন থেকে বিদায়ের পথ দেখান অধিনায়ক।

ইংল্যান্ডের পর ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে ওডিআই সিরিজে টিম ইন্ডিয়ার স্কোয়াডে অন্তর্ভুক্ত হলেও শিখর ধাওয়ানের অধিনায়কত্বে খেলার সুযোগ পাননি। তার পরিবর্তে শুভমান গিলকে সুযোগ দিতে দেখা গেছে ধাওয়ানকে।

ঈশান কিষাণ যতগুলো সুযোগ পেয়েছেন তার মধ্যে দুর্দান্ত পারফর্ম করেছেন। আইপিএলের পর, তিনি দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে 5 ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে 2টি অর্ধশতকের সাহায্যে 160 রান করতে সক্ষম হন। তবে এর পর আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে এবং তারপর ইংল্যান্ডের বিপক্ষে তার ব্যাট বিশেষ কিছু দেখাতে পারেনি, যার কারণে তাকেও দল থেকে বাইরের পথ দেখানো হয়।

আমাদের জানিয়ে দেওয়া যাক যে ঈশান কিশানকে অধিনায়ক রোহিত শর্মার সাথে টিম ইন্ডিয়ার হয়ে ওপেন করতে দেখা যায় তবে তিনি বর্তমানে একাদশের বাইরে রয়েছেন। এমন পরিস্থিতিতে নিজের জায়গা করে নিচ্ছেন সূর্যকুমার যাদব।

নির্বাচকদের পাশাপাশি ঈশান কিষাণকে উপেক্ষা করতে ব্যস্ত অধিনায়কও। যদিও টিম ইন্ডিয়ার নিয়মিত অধিনায়ক রোহিত শর্মার কাছে ইশানকে স্পেশাল মনে করা হয়, কিন্তু তা সত্ত্বেও সুযোগ পাচ্ছেন না তিনি। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ৩ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে খারাপভাবে উপেক্ষিত হওয়ার পর এখন টি-টোয়েন্টি সিরিজেও তাকে উপেক্ষা করা হচ্ছে।

আমাদের জানিয়ে দেওয়া যাক যে ইশান কিশান ভারতের হয়ে মোট 14 টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন যাতে তিনি 480 রান করেছেন 36.92 গড়ে, যার মধ্যে 4টি হাফ সেঞ্চুরি রয়েছে। ইশান কিষাণকে দল থেকে বাদ দেওয়ার কারণে শুভমান গিল, সূর্যকুমার যাদবের মতো খেলোয়াড়রাও উপকৃত হচ্ছেন।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published.