পদত্যাগ করার পর অবশেষে নিজের ব্যার্থতার কথা স্বীকার করলেন রবি শাস্ত্রী

টি২০ বিশ্বকাপের পরে ভারতীয় কোচের পদ থেকে সরানো হয়েছে রবি শাস্ত্রীকে। তাঁর অধীনে কোহলীদের সব থেকে খারাপ ফল কী, জানিয়ে দিলেন শাস্ত্রী।

তাঁর মতে, অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে অ্যাডিলেডে দিন-রাতের টেস্টে কোহলীদের ৩৬ রানে অলআউট হয়ে যাওয়া তাঁর কোচিং জীবনের সব থেকে খারাপ ফল।

এক সংবাদপত্রকে শাস্ত্রী বলেন, ‘‘দেখুন কোচ সব সময় বন্দুকের নলের সামনে থাকে। এই পেশা এরকমই। আপনাকে সেই দিনটার অপেক্ষা করতে হয়। আমি জানতাম আমার পালানোর কোনও পথ নেই। ৩৬ রানে অলআউট হয়ে যাওয়া সব থেকে খারাপ ফল।’’

খারাপ ফলের জন্য অবশ্য দলের কাউকে দায়ী করেননি শাস্ত্রী। তিনি বলেন, ‘‘আমাদের হাতে ৯ উইকেট ছিল। তার পর আমরা ৩৬ রানে অলআউট হয়ে যাই। আরও ৮০ রান করলেই আমরা খেলায় থাকতাম।

কিন্তু সে দিন আমরা যেন চিন্তা-ভাবনা করার শক্তি হারিয়ে ফেলেছিলাম। ওই ফল আমাদের বড় ধাক্কা দিয়েছিল। কী ভাবে অত খারাপ খেলেছিলাম, সেটা আমরাই বুঝতে পারিনি।’’

দলের ব্যর্থতার সঙ্গে সাফল্যকেও তিনি সমান ভাবে উপভোগ করেছেন বলে জানিয়েছেন কোহলীদের প্রাক্তন কোচ। তিনি বলেন, ‘‘সবার আগে আমি হাত তুলে বলেছিলাম যে সব দায় আমার।

কারণ লুকনোর কোনও জায়গা ছিল না। আমি দলের সবাইকে বলেছিলাম পরের ম্যাচের জন্য তৈরি হতে। ছেলেরা অসাধারণ খেলেছিল। এর এক মাসের মধ্যে আমরা অস্ট্রেলিয়ায় সিরিজ জিতেছিলাম। আমি নিশ্চিত, যত দিন বেঁচে থাকব মানুষ সেই সিরিজের কথা বলবেন।’’

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *