প্রথম বাবের মত চার দেশীয় সিরিজ খেলতে যাচ্ছে ভারত পাকিস্তান সহ এই দুইটি দেশ

টি-২০ বিশ্বকাপে ভারতের বিরুদ্ধে জয়ের পর পাকিস্তান যেন রক্তের স্বাদ পেয়েছে। যে কোনওভাবে বিরাট কোহলিদের বিরুদ্ধে খেলতে মরিয়া পাক বোর্ড (PCB)। বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ সম্ভব নয় বুঝে এবার চার দলীয় সিরিজের প্রস্তাব দিচ্ছেন পাক বোর্ডের প্রধান রামিজ রাজা

আইসিসি আয়োজিত ইভেন্ট ছাড়া প্রায় ৯ বছর ধরে মাঠে পাক-ভারত দ্বিপাক্ষিক লড়াই নেই। কিন্তু এই দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর লড়াই দেখতে সারা বছরই উন্মুখ হয়ে থাকেন ক্রিকেট ভক্তরা।দুই দেশের মধ্যকার কূটনৈতিক সম্পর্কের কারণেই ভারত বা পাকিস্তানের মাটিতে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ আয়োজন সম্ভব হয়ে ওঠে না।

আর তাই বহুল কাঙ্ক্ষিত এই লড়াই দেখার অপেক্ষার প্রহর গুনতে হয় সমর্থকদের।দুই দলের দ্বৈরথ নিয়ে গত বছরের শেষ দিকে একটা গুঞ্জন শোনা গিয়েছিল। বলা হচ্ছিল, দীর্ঘ এক দশক পর ক্রিকেটের ২২ গজে ফের ভারত-পাকিস্তান দুই দেশের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সিরিজের আনন্দ উপভোগ করতে পারবেন দুই দেশের ক্রিকেটপ্রেমীরা।মূলত সাবেক পাক ক্রিকেটার ও ধারাভাষ্যকার রমিজ রাজার পিসিবির দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই এমন গুঞ্জন শোনা গিয়েছিল।

তবে এরপরই খোদ ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই) সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি জানিয়েছিলেন, ভারত-পাকিস্তান দ্বিপাক্ষিক সিরিজের বিষয়টি দুই দলের বোর্ডের হাতে নেই। বিষয়টি সম্পূর্ণ নির্ভর করছে দুই দেশের নীতিনির্ধারকদের ওপর।এদিকে ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে সিরিজ আয়োজনের সিদ্ধান্তে অনড় রয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড প্রধান রমিজ রাজা।

জানা গেছে, ভারত-পাকিস্তানসহ চার দেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজ আয়োজনের প্রস্তাব আইসিসিকে দিবেন তিনি। অস্ট্রেলিয়ার গণমাধ্যমসূত্রে এমনটা জানা গেছে।শুধু ভারত-পাকিস্তান নয়, আরও দুই দেশকে নিয়ে সিরিজটি আয়োজনের প্রস্তাব দেবেন রমিজ।

ভারতের পাশাপাশি অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডকে নিয়ে প্রতি বছর চার দেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজ আয়োজনের কথা আইসিসিকে জানাবে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড।সীমান্ত সহিংসতা ও রাজনৈতিক উত্তাপের কারণে ২০১২ সালের পর থেকে দ্বিপাক্ষিক সিরিজে আর মুখোমুখি হয়নি দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী।

তবে এর মধ্যে বেশ কয়েকবার কেবল আইসিসির বৈশ্বিক আয়োজনগুলোতে অংশ নেয় দুই দেশ।সবশেষ পাকিস্তান-ভারত মুখোমুখি হয়েছিল সদ্য সমাপ্ত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে। যেখানে বিশ্বকাপের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো টিম ইন্ডিয়াকে হারায় পাকিস্তান।

এদিকে, শুধু বৈশ্বিক টুর্নামেন্টের মঞ্চেই নয়, নিরপেক্ষ ভেন্যুতে প্রতি বছর তিন ম্যাচের দ্বিপাক্ষিক টি-টোয়েন্টি সিরিজ আয়োজনের পরামর্শ দিয়েছেন সাবেক ইংলিশ অধিনায়ক কেভিন পিটারসেন।

এ প্রসঙ্গে পিটারসেন বলেন, ‌‘নিরপেক্ষ ভেন্যুতে প্রতি বছর পাঁচ দিনের ব্যবধান রেখে ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে তিনটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলা উচিত। বিজয়ী দলের স্কোয়াডের ১৫ জনের জন্য প্রাইজমানি থাকবে ১৫ মিলিয়ন ডলার। বছরে অন্তত একটা এমন সপ্তাহ চায় ক্রিকেট সংশ্লিষ্টরা।‌

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *