প্লেয়ার হিসেবে অবসরের পথে, তবে আইপিলে-এ নতুন ভূমিকায় দেখা যাবে হরভজন সিং,কে

আর এর পরেই নতুন মরশুমে আইপিএল দলের সাপোর্ট স্টাফের ভূমিকায় তাঁকে দেখা যেতে পারে বলে সূত্রের খবর। পিটিআই-কে হরভজনের ঘনিষ্ঠ মহল সূত্রে জানানো হয়েছে, বেশ কয়েকটি আইপিএল দলের প্রস্তাব ভাজ্জির কথা রয়েছে। তার থেকে তিনি কোনও একটি দল বেছে নেবেন।

২০২১ আইপিএলে কলকাতা নাইট রাইডার্স দলে থাকলেও মাত্র তিনটি ম্যাচ খেলেছিলেন হরভজন সিং। কিন্তু তিনি সে ভাবে সাফল্য পাননি। তবে ২০২২ আইপিএলে তিনি আর খেলবেন না, মনস্থির করে ফেলেছেন।

খেললেও হয়তো টিম পেতেন না। কারণ তাঁর পারফরম্যান্স এখন তলানিতে। স্বাভাবিক ভাবেই সব ধরনের ক্রিকেট থেকে সরে দাঁড়ানোর পরিকল্পনা করে ফেলেছেন ভাজ্জি।

তবে ২২ গজ থেকে তিনি নিজেকে সরিয়ে রাখতে রাজি নন। সম্ভবত ২০২২ আইপিএলেই নতুন ভূমিকায় দেখা যেতে পারে তাঁকে।

শোনা যাচ্ছে, আগামী সপ্তাহে সব ধরনের ক্রিকেট থেকে নিজের অবসরের কথা ঘোষণা করবেন হরভজন। আর এর পরেই নতুন মরশুমে আইপিএল দলের সাপোর্ট স্টাফের ভূমিকায় তাঁকে দেখা যেতে পারে বলে সূত্রের খবর।

পিটিআই-কে হরভজনের ঘনিষ্ঠ মহল সূত্রে জানানো হয়েছে, বেশ কয়েকটি আইপিএল দলের প্রস্তাব ভাজ্জির কাছে রয়েছে। তার থেকে তিনি কোনও একটি দল বেছে নেবেন।

মূলত দলের পরামর্শদাতা, মেন্টর বা অ্যাডভাইসরি গ্রুপের সদস্য হয়ে নিজের অভিজ্ঞতা বাড়াতে আগ্রহী হরভজন। পাশাপাশি নিজের অভিজ্ঞতাও তিনি ভাগ করে নিতে চান।

নিলাম থেকে কোন ক্রিকেটারকে নেওয়া উচিত সে ব্যাপারেও মূল্যবান পরামর্শ হরভজন দেবেন সংশ্লিষ্ট দলটিকে। মুম্বই ইন্ডিয়ান্সে আইপিএলের বেশির ভাগ সময়টা কাটিয়েছেন ভাজ্জি।

তবে এখনও জানা যায়নি কোন দলের সঙ্গে নতুন ভূমিকায় ভাজ্জি যোগ দিতে চলেছেন। আইপিএলে হরভজন ১৬০টি ম্যাচ খেলেছেন। উইকেটের নিয়েছেন ১৫০টি।

সেরা বোলিং চেন্নাই সুপার কিংসের বিরুদ্ধে ১৮ রানে ৫ উইকেট। ২০১৩ সালের আইপিএলে ১৯ ম্যাচে ২৪ উইকেট নিয়েছিলেন তিনি। ২০১৫ সালের আইপিএলে ১৮টি,

২০১০ সালের আইপিএলে ১৭টি এবং ২০১১ এবং ২০১৪ সালের আইপিএলে ১৪টি করে উইকেট নিয়েছিলেন হরভজন। আইপিএলের কোন দলের সঙ্গে হরভজন যুক্ত হবেন, সেটা জানা যায়নি। তবে একটি দলের সঙ্গে যে কথাবার্তা অনেকটাই এগিয়েছে, সে ব্যাপারে জানা গিয়েছে।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *