বাবাকে কথা দেয়ার কারণেই এমন ব্যাট দিয়ে খেলেছিঃ শচীন

শচীন রমেশ তেন্ডুলকর একজন প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার। তিনি ক্রিকেট ইতিহাসের সর্বোচ্চমানের ব্যাটসম্যান হিসেবে বিশ্বব্যাপী স্বীকৃত। শচীনের মাত্র ষোলো বছর বয়সে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক হয় এবং

এরপর থেকে প্রায় চব্বিশ বছর তিনি আন্তর্জাতিক স্তরে ভারতের হয়ে ক্রিকেট খেলেন

সচীনকে বলা হয় ক্রিকেটের ঈশ্বর। তিনি তার ওয়ানডে কেরিয়ারে ১৫,৯২১ এবং টেস্ট কেরিয়ারে ১৮,৪২৬ রান করেছেন। একমাত্র ক্রিকেটার হিসেবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে করেছেন ১০০ টি শতরান।

এমনকি ওয়ান ডে ক্রিকেটে প্রথম দ্বিশতরানের সম্মানটিও রয়েছে তার দখলে। ২০১০ সালের ২৪ শে ফেব্রুয়ারি সচীন একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের প্রথম ডবল সেঞ্চুরি করেন। স্টেন-মর্কেল সম্মিলিত দক্ষিণ আফ্রিকার বোলিংয়ের সামনে এই কীর্তি গড়েছিলেন তিনি।

সচীনের পরে, বীরেন্দ্র সেওবাগ ২০১১ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে সচিনের সেই রেকর্ড ভেঙে ২১৯ রান করেছিলেন। তার দুই বছর পরে রোহিত শর্মা ২০১৩ সালে রোহিত শর্মা অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ২০৯ রানের ইনিংস খেলেছিলেন।

তারপরের বছরই রোহিত শর্মাই আবার ২০১৪ সালে কলকাতার মাটিতে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ২৬৪ রানের ইনিংস খেলেছিলেন, যা এখনও পর্যন্ত ওয়ান ডে ক্রিকেটের ইতিহাসে সর্বাধিক রানের বিশ্ব রেকর্ড।

এর পরে, ২০১৫ বিশ্বকাপে ক্রিস গেইল জিম্বাবোয়ে বিরুদ্ধে ২১৫ রানের ইনিংস খেলেছিলেন। সেই বিশ্বকাপেই কিউয়ি ওপেনার মার্টিন গাপ্টিল গেইলেরই দলের বিরুদ্ধে ২৩৭ রান করেছিলেন।

২০১৭ সালে সকলকে চমকে দিয়ে রোহিত শর্মা আবার ডবল সেঞ্চুরি করেন এবং ২০৮ রানে অপরাজিত থাকেন। এর পরে, পাকিস্তানি ব্যাটসম্যান ফখর জামান ২০১৮ সালে ওয়ান ডে ক্রিকেটের ইতিহাসে এখনও অবধি শেষ দ্বিশতরানটি (২১০) করেন।

তবে প্রথম ওয়ান ডে ক্রিকেটে দ্বিশতরান করা সচিন একটি বেসরকারি হিন্দি নিউজ চ্যানেলে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে সচীন টেন্ডুলকার জানিয়েছিলেন যে তিনি তার বাবাকে একটি বড় প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন।

সচীন টেন্ডুলকার বলেন, ‘আমি আমার বাবাকে কথা দিয়েছিলাম যে আমি কখনই তামাকজাত দ্রব্য বা অ্যালকোহলের বিজ্ঞাপনের অংশ হবো না।

সচীন বলেছেন, ‘আমার বাবা আমাকে বলেছিলেন যে আমি একজন রোল মডেল এবং অনেক লোক আপনাকে অনুসরণ করবে। তাই এই জাতীয় বিজ্ঞাপন থেকে দূরে থাকতে হবে আমায়’

সচিন জানান যে, ‘৯০-এর দশকে যখন আমি ক্রিকেট খেলছিলাম তখন আমার ব্যাটে কোনো স্টিকার ছিল না। আমার কোনো চুক্তি ছিল না, কিন্তু দলের সবাই প্রধানত উইলস এবং ফোর স্কোয়ারের স্টিকার ব্যবহার করত।

কিন্তু আমি আমার বাবার কাছে যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম তা ভঙ্গ করিনি। আমি এই ব্র্যান্ডগুলিকে সমর্থন করিনি। ব্যাটে সেই ব্র্যান্ডের স্টিকার লাগিয়ে প্রচার করার অনেক অফার পেয়েছি,

কিন্তু আমি তাদের সব সমর্থন করতে চাইনি। আমি এই দুটি জিনিস (সিগারেট এবং মদের ব্র্যান্ড) থেকে দূরে ছিলাম এবং আমার বাবাকে যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম তা কখনও ভঙ্গ করিনি।’

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *