বিরাটের অধিনায়কত্ব ইস্যুতে বিসিসিআইকে ধুয়ে দিলেন শহিদ আফ্রিদি

বিরাট কোহলির পরিবর্তে রোহিত শর্মাকে ভারতের ওয়ানডে অধিনায়ক করা নিয়ে বিতর্ক শেষ হতে চায়ছে না। এরই মধ্যে এই বিষয়ে মুখ খুলেছেন পাকিস্তানের প্রাক্তন অধিনায়ক শাহিদ আফ্রিদি।

আফ্রিদি বলেছেন যে এই বিষয়টি বোর্ড অফ ক্রিকেট ফর কন্ট্রোল ইন ইন্ডিয়া (বিসিসিআই)-র দ্বারা আরও ভালভাবে পরিচালনা করা যেত। যাবতীয় বিতর্কের জন্য বিসিসিআইয়ের দিক থেকে স্পষ্ট যোগাযোগের অভাবকে দায়ী করেছেন তিনি।

দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে যাওয়ার আগে প্রেস কনফারেন্সে, কোহলি বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলীর দাবির বিরোধিতা করেছিলেন। তিনি বলেছিলেন

যে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পরে টি-টোয়েন্টি অধিনায়কত্ব না ছাড়া নিয়ে বোর্ডের দিক থেকে কখনওই তাঁকে বারণ করা হয়নি। অন্যদিকে, বোর্ড প্রেসিডেন্ট সৌরভ গাঙ্গুলী বলেছিলেন যে তিনি ব্যক্তিগতভাবে কোহলিকে টি-২০ অধিনায়কত্ব না ছাড়তে অনুরোধ করেছিলেন।

টি-টোয়েন্টি অধিনায়কত্ব থেকে পদত্যাগ করার পর কোহলি টেস্ট এবং ওয়ানডেতে ভারতের নেতৃত্ব চালিয়ে যাওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন। যদিও দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের টেস্ট দল ঘোষিত হওয়ার সময় নির্বাচকরা কোহলিকে জানান যে ভারতীয় দলের ওডিআই অধিনায়কের পদ থেকে তাঁকে সরিয়ে রোহিত শর্মাকে নিযুক্ত করা হচ্ছে।

আফ্রিদি যোগ করেছেন যে একটি ক্রিকেট বোর্ড পিতার ভূমিকা পালন করে এবং বোর্ডের উচিত তাদের ভবিষ্যত পরিকল্পনা সম্পর্কে (এই ক্ষেত্রে বিসিসিআই) একজন খেলোয়াড়ের সাথে যোগাযোগ করা।

“এটি আরও ভালভাবে পরিচালনা করা যেত। আমি সবসময় মনে করি, ক্রিকেট বোর্ডের ভূমিকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ; তারা পিতার ভূমিকা পালন করে। একজন খেলোয়াড়কে নিয়ে বোর্ডের নির্বাচক কমিটির ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা যাই হোক না কেন,

তারা সেই পরিকল্পনাগুলো সেই খেলোয়াড়কে জানিয়ে দেয়, যেমন, ‘দেখুন, আমাদের এই পরিকল্পনা আছে, আপনার পরিকল্পনা কী? আমরা এটি করতে চাই এবং একটি বোর্ড হিসাবে, আমরা মনে করি এমন করে আমরা সুফল পাব,” শাহিদ আফ্রিদি বলেছেন।

শহিদ আফ্রিদিও মনে করেন বিসিসিআই যদি মিডিয়ার মাধ্যমে যোগাযোগ করে তাহলে সমস্যা হবে। বোর্ড এবং খেলোয়াড়দের মুখোমুখিভাবে কথা বলা উচিত বলে যোগ করে, আফ্রিদি এই বলে শেষ করেছেন যে সর্বসমক্ষে সমস্যা তুলে আনলে সেই সমস্যার সমাধান হবে না।

“আপনি যদি মিডিয়ার মাধ্যমে যোগাযোগ করেন, তাহলে সমস্যা হবে। একে অপরের সামনে বসলে, সামনাসামনি কথা বললে আমার মনে হয় সমস্যার সমাধান হতে পারে।

আপনি যদি নিজে সমস্যা তৈরি করতে চান, তবে তাতে কোনও কিছুর সমাধান হবে না,” শহিদ আফ্রিদি উপসংহারে বলেছেন।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *