বিরাট কোহলি বিতর্কে অবশেষে মুখ খুললেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়

বিরাট কোহলি বিতর্কে অবশেষে মুখ খুললেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। তবে বিষয়টি নিয়ে কোনও মন্তব্য করতে চাননি তিনি। বরং সার্বিকভাবে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) কোর্টে বল ঠেলে বৃহস্পতিবার তিনি বলেন, ‘আমার কিছু বলার নেই।

এটায় যা বলার বিসিসিআই বলবে।’গত সপ্তাহে বিরাটকে একদিনের ক্রিকেটে ভারতীয় দলের অধিনায়কের পদ থেকে সরিয়ে দেয় বিসিসিআই। তা নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়।

পরদিনই সৌরভ দাবি করেছিলেন, ‘বিসিসিআই এবং নির্বাচকরা মিলিতভাবে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আসলে টি-টোয়েন্টি অধিনায়কত্ব না ছাড়ার জন্য বিরাটকে অনুরোধ করেছিল বিসিসিআই। কিন্তু ও সেটায় রাজি হয়নি।

সেই পরিস্থিতিতে সাদা বলের দুটি ফর্ম্যাটে দু’জন ভিন্ন অধিনায়ক রাখাটা ঠিক হবে বলে মনে করেননি নির্বাচকরা।’ সঙ্গে বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট দাবি করেছিলেন, একদিনের ক্রিকেট দলের অধিনায়কত্ব নিয়ে বিরাটের সঙ্গে ব্যক্তিগতভাবে কথা হয়েছে। তবে কী কথা হয়েছে, সে বিষয়ে কিছু জানাননি সৌরভ।

বিসিসিআই প্রেসিডেন্টের সেই মন্তব্যে বিতর্ক অবশ্য পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আসেনি। বিভিন্ন মহল থেকে বিভিন্ন দাবি করা হতে থাকে। তারইমধ্যে বুধবার বিরাটের মন্তব্যে ভারতীয় ক্রিকেটের ‘বিভাজন’ কার্যত স্পষ্ট হয়ে যায়।

দক্ষিণ আফ্রিকায় উড়ে যাওয়ার আগে সাংবাদিক বৈঠকে বিরাট দাবি করেন, ‘যখন আমি বিসিসিআইকে বলি যে আমি টি-টোয়েন্টি অধিনায়কত্ব ছাড়তে চাই, তখন তা ভালোভাবে গ্রহণ করা হয়েছিল। কোনওরকম দ্বিধাবোধ ছিল না। আমায় বলা হয় যে এটা প্রগতিশীল পদক্ষেপ।

সেই সময় জানিয়েছিলাম যে আমি একদিনের ক্রিকেট এবং টেস্টে দলকে নেতৃত্ব দিতে চাই না। আমার তরফে বার্তা স্পষ্ট ছিল। আমি এটাও জানিয়েছিলাম, বিসিসিআই কর্তা এবং নির্বাচকরা যদি মনে করেন যে অন্য ফর্ম্যাটে আমার নেতৃত্ব দেওয়া উচিত নয়, সেটাও ঠিক আছে।’ তারইমধ্যে বৃহস্পতিবার দুপুরে নিজের বাড়ি থেকে বেরনোর সময় সৌরভ জানান, বিসিসিআই

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *