বোর্ডের সাথে বিতর্কের পর এবার বিমানবন্দরে নতুন বিতর্কে কোহলি

ইতিপূর্বে সোশ্যাল মিডিয়ায় একাধিকবার দেখা গেছে বিরাট কোহলি তার ভক্তদের মনোবাসনা পূর্ণ করছেন। এমনকি একাধিকবার বাস থেকে নেমে ভক্তের পাশে দাঁড়িয়েছেন তিনি। যার জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় ভারতীয় ক্রিকেটারদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি অনুগামী রয়েছে তার।

বিপদ যেন কিছুতেই পিছু ছাড়া হচ্ছে না বিরাট কোহলি জীবনে। একের পর এক নানা বিতর্কে জড়িয়ে পড়ছেন ভারতীয় টেস্ট দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি।

গত বুধবার ভার্চুয়াল সাংবাদিক বৈঠকে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড এবং ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের প্রেসিডেন্ট সৌরভ গাঙ্গুলীর সাথে বিতর্কে জড়িয়েছেন বিরাট কোহলি।

বিষয়টি নিয়ে ইতিমধ্যে তদন্তে নেমেছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। তার মধ্যে আরেক নয়া বিতর্কে হাত দিয়ে বসলেন ভারতীয় অধিনায়ক।

জীবনের যেন চরম বিপদের সময় আসন্ন হয়েছে বিরাট কোহলির। সমস্ত জল্পনার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে গত কাল প্রোটিয়া সফরে উড়ে গেছে ভারতীয় ক্রিকেট দল। স্বাগতিকদের বিরুদ্ধে তিনটি টেস্ট ম্যাচ এবং তৃতীয় ওডিআই ম্যাচ খেলবে টিম ইন্ডিয়া।

যদিও ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের তরফ থেকে জানানো হয়নি যে, একদিনের ম্যাচে ভারতীয় দলের নেতৃত্বে থাকবেন কে। তবে বিরাট কোহলির নেতৃত্বে যে ভারত টেস্ট ক্রিকেট খেলতে নামছে

সে বিষয়ে কোন রকম ধোঁয়াশা নেই। কিন্তু দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে যাওয়ার আগের মুহূর্তে আবার নতুন বিতর্কে জড়িয়ে পড়েছেন ভারতীয় দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি।

ভারতীয় ক্রিকেট দলের বাসে করে এদিন এয়ারপোর্টে পৌঁছে নতুন বিতর্কে জড়িয়ে পড়েন তিনি। ইতিপূর্বে সোশ্যাল মিডিয়ায় একাধিকবার দেখা গেছে বিরাট কোহলি তার ভক্তদের মনোবাসনা পূর্ণ করছেন। এমনকি একাধিকবার বাস থেকে নেমে ভক্তের পাশে দাঁড়িয়েছেন তিনি।

যার জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় ভারতীয় ক্রিকেটারদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি অনুগামী রয়েছে তার। কিন্তু এ দিনের ঘটনা ঘটলো পুরো উল্টো। দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে বিরাট কোহলির সাথে গিয়েছেন অনুষ্কা শর্মাও।

বিরাট কোহলি এবং তার স্ত্রী সন্তান বাস থেকে নামার সাথে সাথে ফটোগ্রাফাররা ছবি তোলার কাজে ব্যস্ত হয়ে পড়েন। প্রথমে বিরাট কোহলি বারণ করেন যেন ফটোগ্রাফাররা তার মেয়ের ছবি না তোলে।

কিন্তু ফটোগ্রাফাররা সেই নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ছবি তুলতে থাকে। এরপর বিরাট কোহলি ধমকের সুরে নিষেধ করেন ফটোগ্রাফারদের। আর এই নিয়ে শুরু হয়েছে নতুন বিতর্ক। এই বিতর্কে দৌড় কতদূর দৌড়াবে তা এখন সংবাদমাধ্যমের হাতে।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *