ব্যাটারদের বারতি সুবিধা দিয়ে টি-টোয়েন্টিতে একাধিক নতুন নিয়ম চালু করছে আইসিসি

১৬ জানুয়ারি জামাইকাতে অনুষ্ঠিত হতে চলা ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং আয়ারল্যান্ডের ম্যাচ প্রথম এই নিয়মে খেলা হবে বলে জানিয়েছে বিশ্ব ক্রিকেট নিয়ামক সংস্থা। মেয়েদের ক্রিকেটে এই নিয়মে প্রথম ম্যাচ খেলা হবে ১৮ জানুয়ারি। দক্ষিণ আফ্রিকা এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজ সেই ম্যাচ খেলবে।

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে নতুন নিয়ম আনতে চলেছে বিশ্বক্রিকেট নিয়ামক সংস্থা। তবে নতুন এই নিয়মের জন্য বোলারদের থেকে ব্যাটসম্যানরা বাড়তি সুযোগ পেতে চলেছে বলে মনে করছেন ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা। তবে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটকে আরো আকর্ষণীয় করতে এটি আইসিসির কড়া পদক্ষেপ বলে উল্লেখ করেছে। এক নজরে দেখে নিন ঠিক কী কী নিয়ম আনছে ক্রিকেটের নিয়ামক সংস্থা?

১. আইসিসি জানিয়েছে যে, টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে মন্থর বোলিংয়ের জন্য সেই ম্যাচেই শাস্তি দেওয়া হবে বোলিং দলকে। এখন থেকে কোনও দল যদি নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ইনিংসের শেষ ওভার শুরু করতে না পারে তা হলে ওভারের বাকি বলগুলোর সময় ৩০ গজের বাইরে একজন ফিল্ডার কম রাখতে হবে তাদের। অর্থাৎ একজন কম প্লেয়ার থাকবেন বাউন্ডারি সীমানায়। সেই ক্ষেত্রে ব্যাটারদের কাছে বাড়তি সুবিধা থাকবে শেষ দিকে বেশি রান তুলে নেওয়ার।

উল্লেখ্য, ইতিপূর্বে মন্থর ওভার রেটের জন্য ফিল্ডিং দলকে জরিমানা করা হত। ম্যাচের কিছু শতাংশ ফি জরিমানা করা হতো ক্রিকেটারদের নিকট থেকে। তাছাড়া অনেক সময় অধিনায়ককে শাস্তি দেওয়া হত ম্যাচ খেলতে না দিয়ে। তবে এসব প্রথা তুলতে চলেছে আইসিসি। দলের একটি ভুল, প্রত্যেকটি প্লেয়ারকে তার মাশুল দিতে হবে বলে জানিয়েছে বিশ্বক্রিকেট নিয়ামক সংস্থা।

২. এ ছাড়াও আরও একটি নিয়ম আনছে আইসিসি। এই নিয়মটি ভারতীয় প্রিমিয়ার লিগের অনুকরনে ইন্টার্নেশনাল টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটেও সংযুক্ত করতে চলেছে আইসিসি। ইনিংসের মাঝে আইপিএল-এ যেমন আড়াই মিনিটের একটি জল খাওয়ার বিরতি দেওয়া হয়, আন্তর্জাতিক ম্যাচেও তেমনটাই করা হবে এ বার থেকে।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *