মন্ত্রী হয়ে ম্যাচের সেরা হওয়ার অনুভূতি প্রকাশ করলেন মনোজ

প্রথম ম্যাচে ব্যাটে রান আসেনি। কিন্তু ক্লাব ক্রিকেটে দ্বিতীয় ম্যাচেই ঝলসে উঠল মনোজ তিওয়ারির ব্যাট। অপরাজিত শতরান করে মোহনবাগানকে জেতালেন দশ উইকেটে। তার পরেই খুশিতে ভাসছেন বাংলার ক্রীড়া ও যুবকল্যাণ দপ্তরের প্রতিমন্ত্রী।

“সত্যি বলতে, এই শতরানের অনুভূতি আমার কাছে আলাদা। জীবনে অনেক বার ম্যাচের সেরার পুরস্কার পেয়েছি। কিন্তু রাজনীতিতে আসা এবং মন্ত্রীত্ব পাওয়ার পর আবার খেলার মাঠে ফিরে ম্যাচের সেরা হওয়া সত্যিই অন্য রকম অনুভূতি।

গোটা ইনিংসটাই উপভোগ করেছি। যে ভাবে খেলতে চাইছিলাম সে ভাবেই খেলতে পেরেছি।”

মনোজের সংযোজন, “মোহনবাগানের প্রতি আমার যে আলাদা আবেগ রয়েছে সেটা সবাই জানে। তার উপর শতরান করে দলকে দশ উইকেটে জেতানো সত্যিই একটা আলাদা ব্যাপার।”

বাংলার হয়ে সীমিত ওভারের দু’টি প্রতিযোগিতায় দেখা যায়নি মনোজকে। বাংলার ক্রিকেটার জানালেন, সেই সময় হাঁটুতে হালকা চোট ছিল। কিন্তু রঞ্জিতে সুযোগ পেয়ে নিজের সেরাটা উজাড় করে দিতে তৈরি মনোজ।

বললেন, “পুরোদমে খেলতে আমি তৈরি। নিজেকে সে ভাবেই প্রস্তুত করছি।”

সেই প্রস্তুতির অঙ্গ হিসেবেই কি ক্লাব ক্রিকেটে খেলা? মনোজ মানতে চাইলেন না। বলেছেন, “এটা সাদা বলের প্রতিযোগিতা। রঞ্জি খেলতে হবে লাল বলে। তাই ক্লাব ক্রিকেটকে রঞ্জির প্রস্তুতি হিসেবে দেখতে রাজি নই।

দুটো ম্যাচ খেলার কথা ছিল। এ বার ফের বাংলা দলের সঙ্গে অনুশীলন করে নিজেকে তৈরি করব। তবে নিজেকে অনেকটাই ফিট লাগছে। লাল বলের ক্রিকেটেও নিজের সেরাটা দিতে তৈরি।”

আসন্ন রঞ্জিতে গ্রুপ বি-তে রয়েছে বাংলা। তারা প্রথম ম্যাচ খেলবে ত্রিপুরার বিরুদ্ধে। ৮ তারিখেই বেঙ্গালুরু উড়ে যাওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে বাংলার।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *