মাত্র পাওয়া : আবারো মুখোমুখি হচ্ছে ক্রিকেটের দুই পরাশক্তি ভারত-পাকিস্থান

বোর্ড অফ কন্ট্রোল ফর ক্রিকেট ইন ইন্ডিয়া বিসিসিআই শুক্রবার এই মাসের ২৩ তারিখ থেকে শুরু হতে যাওয়া অনূর্ধ্ব ১৯ এশিয়া কাপের জন্য ২০ সদস্যের দল ঘোষণা করেছে। জাতীয় ক্রিকেট একাডেমিতে আয়োজিত ক্যাম্পের জন্য বোর্ড ২৫ সদস্যের একটি দলও ঘোষণা করেছে,

যারা ১১ থেকে ১৯ ডিসেম্বর ক্যাম্পে অংশগ্রহণ করবে। সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে ২৩ ডিসেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে এশিয়া কাপ। এর আগে বেঙ্গালুরুতে এনসিএতে অংশ নেবে দলটি।

ভারতীয় দল এই টুর্নামেন্টের সবচেয়ে সফল দল। অষ্টমবারের মতো এই শিরোপা জিততে চান তিনি।দলের নেতৃত্ব পেয়েছেন দিল্লির ব্যাটসম্যান যশ ধুল। এছাড়াও দলে জায়গা পেয়েছেন দুই উইকেটরক্ষক।

দীনেশ বানানা এবং আরাধ্যা যাদব দুই উইকেটকিপার। ধুল এই বছরের শুরুর দিকে ভিনু মানকড় ট্রফিতে ৭৫.৫০ গড়ে ৩০২ রান করেছিলেন।

বোর্ড জানিয়েছে, আগামী বছর জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজে অনুষ্ঠেয় অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের জন্য ভারতীয় দল পরে নির্বাচন করা হবে। এশিয়া কাপ টুর্নামেন্টে, ভারতকে ২৩ ডিসেম্বর স্বাগতিক সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিরুদ্ধে প্রথম ম্যাচ খেলতে হবে।

এর পর ২৫ ডিসেম্বর ভারত মুখোমুখি হবে তার চির প্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের। ২৭ ডিসেম্বর আফগানিস্তানের বিপক্ষে খেলবে ভারতীয় দল। লিগ পর্বের পর প্রথম সেমি ফাইনাল খেলা হবে ৩০ ডিসেম্বর।

দ্বিতীয় সেমি ফাইনালও অনুষ্ঠিত হবে তারিখে। নতুন বছরের ১ জানুয়ারি ফাইনাল খেলা হবে। ভারতের অনূর্ধ্ব-১৯ দলের দারুণ রেকর্ড রয়েছে। এ পর্যন্ত সাতবার এই শিরোপা জিতেছেন তিনি। এই টুর্নামেন্টটি ১৯৮৯ সালে প্রথমবারের মতো আয়োজিত হয়েছিল।

এরপর শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে জয় পেয়েছে ভারত। এরপর এই টুর্নামেন্ট বেশিদিন হয়নি। এই টুর্নামেন্টটি ২০১৯ সালে আবার খেলা হয়েছিল এবং ভারত আবার শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে জিতেছিল।

এই দলে ইরফান পাঠান, রবিন উথাপ্পা, সুরেশ রায়নার মতো খেলোয়াড় ছিলেন। আবার এই টুর্নামেন্ট বেশিদিন অনুষ্ঠিত হয়নি। টুর্নামেন্টটি ২০১২ সালে ফিরে আসে এবং ভারত পাকিস্তানের সাথে যৌথ বিজয়ী হয়। ভারত আবার ২০১৩-১৪ সালে বিজয়ী হয়।

এটি ২০১৬ সালেও একই গল্প ছিল। ২০১৭ সালে, আফগানিস্তানের তরুণ যোদ্ধারা এশিয়া কাপ জিতেছিল। ২০১৮ এবং ২০১৯ সালেও ভারত বিজয়ী হয়েছিল। এখন অষ্টমবারের মতো এই শিরোপা জিততে চায় দলটি।

এশিয়া কাপের জন্য ভারতের অনূর্ধ্ব-১৯ স্কোয়াড: যশ ধুল (অধিনায়ক), হারনুর সিং পান্নু, আংরিশ রঘুবংশী, অংশ গোসাই, এসকে রশিদ, অন্নেশ্বর গৌতম, সিদ্ধার্থ যাদব, কৌশল তাম্বে, নিশান্ত সিন্ধু, দিন বানা (উইকেটকিপার), আরাধ্যা যাদব (উইকেটকিপার),

রাজনাদ বাওয়া, রাজবর্ধন হাঙ্গারগেকার, গারভ সাংওয়ান, রবি কুমার, ঋষিত রেড্ডি, মানব পারখ, অমৃত রাজ উপাধ্যায়, ভিকি ওসওয়াল, ভাস ভুতস (ফিটনেসের উপর নির্ভর করে)।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *