রাহুলের কারনেই খেসারত দিতে হয়েছে ভারতকে কঠোর সমালোচনায় গাভাস্কার

দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে একদিনের সিরিজের শুরুতেই ধাক্কা ভারতের। পার্লে প্রথম ম্যাচেই প্রোটিয়াদের কাছে হেরে গিয়েছে টিম ইন্ডিয়া। ম্যাচ শেষ হওয়ার পর থেকেই লোকেশ রাহুলের স্ট্র্যাটেজি নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করে দিয়েছিল।

এবার সেই সুরেই সুর মেলালেন প্রাক্তন ভারতীয় কিংবদন্তী তারকা সুনীল গাভাস্কারও। অধিনায়ক লোকেশ রাহুল নাকি দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে বিভ্রান্ত হয়ে পড়েছিলেন। আর সেজন্যই নাকি একের পর এক ভুল সিদ্ধান্ত, যার খেসারত ভারতকে দিতে হয়েছে হার দিয়ে।

দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে রোহিত শর্মার অনুপস্থিতিতে ভারতীয় দলের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়কের দায়িত্ব পেয়েছেন লোকেশ রাহুল। কিন্তু শুরুটা একেবারেই সাফল্যের সঙ্গে করতে পারেননি তিনি। বরং গোটা ম্যাচ জুড়ে তাঁর বেশকিছু সিদ্ধান্ত নিয়ে ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে সমালোচনা। আর তেমনই লোকেশ লাহুলের ভুল সিদ্ধান্ত নিয়ে এবার সমালোচনার সুর সুনীল গাভাস্কারের গলায়।

ম্যাচের পর্যালোচনা করতে গিয়ে গাভাস্কার সরাসরি লোকেশ রাহুলের বিভ্রান্ত হয়ে যাওয়ার কথাই বলেছেন। তাঁর মতে বাভুমা এবং ফান ডার ডাসেনের জোড়া শতরানের জন্যই নাকি ম্যাচে খেই হারিয়ে ফেলেছিলেন লোকেশ রাহুল। আর তার জেরেই একের পর এক ভুল সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছেন ভারতের এই তরুণ তারকা ক্রিকেটার।

গাভাস্কার জানান, “যখন কোনও বড় পার্টনারসিপ হয়, তখন মাঝেমধ্যেই দেখা যায় অধিনায়ক বিভ্রান্ত হয়ে পড়েন। এই ক্ষেত্রে আমারও মনে হয় লোকেশ রাহুলের সঙ্গে তেমনই কিছু একটা হয়েছিল। আর সেজন্যই ম্যাচের ফলাফল এমনটা হয়েছে। উইকেট দেখে মনে হচ্ছিল না যে তা ব্যাটারদের খুব একটা অসুবিধায় ফেলতে পারে। ব্যাটে বলও আসছিল দেখে যা মনে হচ্ছিল। ঠিকভাবে ব্যাট করে গেলেই সমস্যা হত না”।

প্রথমে বোলিং করলেও ভারত কিন্তু শুরুটা খুব একটা খারাপ করেনি। বরং ৬৮ রানের মধ্যে দক্ষিণ আফ্রিকার তিন উইকেট তুলে নিয়ে বেশ চাপই দিয়েছিল। কিন্তু সেটাই শেষপর্য্ন্ত ধরে রাখতে পারেনি। বাভুমা এবং ফান ডার ডাসেনের দুরন্ত পারফরম্যান্সেই ম্যাচের রাশ চলে গিয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকার হাতে। দুই ক্রিকেটারের শতরানেই ভারতীয় বোলিং বিধ্বস্ত হয়েছিল।

সেইসঙ্গে ভেঙ্কটেশ আইয়ারকে দিয়ে বোলিং না করানোরও সমালোচনা করেছেন সুনীল গাভাস্কার। এছাড়াও যখন বুমরা এবং ভুবনেশ্বরদের দিয়ে আরও বেশী আক্রমণ করানো উচিত ছিল তা নাকি লোকেশ করাননি।

আসর এই সবকিছুকেই প্রথম ম্যাচ হারের জন্য প্রধান কারণ হিসাবে দেখছেন সুনীল গাভাস্কার। তাঁর মতে প্রতিপক্ষ দুই ব্যাটারের শতরান দেখেই হতভম্ব হয়ে গিয়েছিলেন লোকেশ রাহুল। ঠিক ঠাক সিদ্ধান্ত না নিতে পারার জন্যই এই ফলাফল হয়েছে।

যদিও প্রাক্তন এই তারকা আশাবাদী যে ভারত ঘুরে দাঁড়াতে পারবে। দ্বিতীয় ম্যাচ থেকে প্রোটিয়াদের বিরুদ্ধে টিম ইন্ডিয়া ঘুরে দাঁড়াতে পারে কিনা সেটাই এখন দেখার।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *