রোহিতের ঘন ঘন ইনজুরি, ভারতীয় দলের স্থায়ী অধিনায়কত্বের দায়িত্ব নিতে মুখ খুললেন হার্দিক পান্ডিয়া

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের শেষ ম্যাচে বিশ্রাম নিয়েছিলেন অধিনায়ক রোহিত শর্মা। তার বদলে অধিনায়কত্ব করেছিলেন তারকা অলরাউন্ডার হার্দিক পান্ডিয়া।

তাতে ভারতের অবশ্য জয় পেতে কোনও রকম অসুবিধাই হয়নি। দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করে ৮৮ রানের ব্যবধানে জয় পেয়েছে ভারত। হার্দিক পান্ডিয়ার নিজেও ব্যাট হাতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছিলেন এই ম্যাচে।

এই ম্যাচের পর হার্দিক পান্ডিয়া কে প্রশ্ন করা হয়েছিল যে ভবিষ্যতে তিনি যদি ভারতীয় দলের পূর্ণদৈর্ঘ্যের অধিনায়ক হওয়ার সুযোগ পান তাহলে তিনি সেই সুযোগ নিতে আগ্রহী কিনা। হার্দিক পান্ডিয়া জবাবে বলেছেন, “যদি আমাকে এই অফার দেওয়া হয় তাহলে কেন না করবো!

আমি অত্যন্ত খুশি মনে এই দায়িত্ব পালন করব। ভারতের মতো দেশের অধিনায়কত্ব করতে পারাটা একটা গর্বের ব্যাপার। কিন্তু আপাতত সামনে একটা বিশ্বকাপ রয়েছে এবং আমরা এখন সেটা নিয়েই ভাবছি। অন্য কোনো চিন্তাকে আপাতত আমরা প্রশ্রয় দিচ্ছিনা।”

২০২১ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর চোট সারিয়ে রিহ‍্যাব করে আইপিএলে মাঠে ফিরেছিলেন হার্দিক পান্ডিয়া। নতুন ফ্রাঞ্চাইজিং গুজরাট টাইটানস তাকে দলে নিয়ে নিজেদের অধিনায়ক নির্বাচিত করেন।

প্রথম বছরেই নিজের নতুন আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজিকে আইপিএল ট্রফি জিতিয়েছেন হার্দিক। অধিনায়কত্বের পাশাপাশি ব্যাটিং এবং বোলিং দুই বিভাগেই তিনি চূড়ান্ত ছন্দে। ইতিমধ্যে ভারতীয় দলের অধিনায়কত্ব করার সুযোগ পেয়েছেন তিনি কয়েকটি ম্যাচে।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে এই সিরিজ জয়ের পর ভারতের মুল টি-টোয়েন্টি দলটি আপাতত কুড়ি দিনের বিশ্রাম পাবে। মাছের জিম্বাবুয়ে সফর থাকলেও তাতে নিয়মিত তারকার কেউই প্রায় যাচ্ছেন না। এরপর রয়েছে এশিয়া কাপ।

২৮ তারিখ পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ম্যাচ দিয়ে ওই হাইভোল্টেজ টুর্নামেন্টে যাত্রা শুরু করবে ভারত। এশিয়া কাপ শেষ হলে ঘরের মাটিতে দক্ষিণ আফ্রিকা এবং অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলে তারপর অস্ট্রেলিয়ায় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের উদ্দেশ্যে রওনা দেবে ভারত।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published.