রোহিত-রাহুল নয় আইসিসি আয়োজিত টুর্ণামেন্টে “ম্যান অব দ্যা সিরিজ” নির্বাচিত হলেন এই ৪ ভারতীয়

বর্তমান বিশ্বের জনপ্রিয় খেলা গুলির মধ্যে ক্রিকেট অন্যতম। আর ক্রিকেট বিশ্বের শক্তিধর দেশগুলোর মধ্যে ভারতের স্থান একদম উপরের সারিতে। ভারত ইতিমধ্যে ক্রিকেটের সবকটি ফরম্যাটে শীর্ষ স্থান অধিকার করেছে।

দুবার ওডিআই বিশ্বকাপ এবং একবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ঘরে তুলেছে ভারত।

বর্তমান বিশ্বের জনপ্রিয় খেলা গুলির মধ্যে ক্রিকেট অন্যতম। আর ক্রিকেট বিশ্বের শক্তিধর দেশগুলোর মধ্যে ভারতের স্থান একদম উপরের সারিতে। ভারত ইতিমধ্যে ক্রিকেটের সবকটি ফরম্যাটে শীর্ষ স্থান অধিকার করেছে।

দুবার ওডিআই বিশ্বকাপ এবং একবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ঘরে তুলেছে ভারত। এছাড়া চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি রয়েছে ভারতের ঝুলিতে। একের পর এক বিশ্বসেরা ক্রিকেটার এসেছে ভারতীয় দলে।

আজ এমন চারজন ভারতীয় ক্রিকেটার সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক যারা আইসিসি আয়োজিত টুর্ণামেন্টে “ম্যান অব দ্যা সিরিজ” নির্বাচিত হয়েছেন-

১. শচীন টেন্ডুলকার: ক্রিকেটের ঈশ্বর শচীন টেন্ডুলকার ক্রিকেটের সমস্ত দিকে নিজের পদচারণা করে গেছেন। একের পর এক বিশ্বরেকর্ড গড়ে তাক লাগিয়েছেন ক্রিকেট বিশ্বকে।

শত সেঞ্চুরির রেকর্ড রয়েছে শচীন টেন্ডুলকারের নামে। যা আজও অক্ষত। ২০০৩ ওয়ানডে বিশ্বকাপে শচীন টেন্ডুলকার পুরো টুর্ণামেন্টে জুড়ে অসাধারণ পারফরম্যান্স করেন।

সৌরভ গাঙ্গুলীর নেতৃত্বে ফাইনালে ভারত পরাজিত হলেও সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারী ব্যাটসম্যান হিসেবে শচীন টেন্ডুলকার “ম্যান অব দ্যা সিরিজ” নির্বাচিত হন।

এই টুর্নামেন্টে তিনি ১১ ম্যাচে ৬১.১৮ গড়ে ৬৭৩ রান করেছিলেন। যার মধ্যে ১টি সেঞ্চুরি ও ৬টি হাফ সেঞ্চুরি ছিল এবং সর্বোচ্চ স্কোর ১৫২ রান।

২. যুবরাজ সিং: মৃত্যুর সাথে সাথে বিশ্ব জয় করেছেন ভারতীয় অলরাউন্ডার যুবরাজ সিং। দুরারোগ্য ব্যাধি ক্যান্সারের সাথে লড়াই করে ২০১১ সালে ওডিআই বিশ্বকাপে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করেন যুবরাজ সিং।

পুরো টুর্ণামেন্টে ধারাবাহিক পারফরম্যান্স করেছিলেন তিনি। বাঁহাতি অলরাউন্ডার ৯টি ম্যাচে ৩৬২ রানের পাশাপাশি ১৫টি উইকেট নিয়ে এই টুর্নামেন্টের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় হন। কোয়ার্টার ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে তার ইনিংসটির জেরে ভারতীয় দল সেমিফাইনালে প্রবেশ করে।

৩. শিখর ধাওয়ান: বাঁহাতি ওপেনার শিখর ধাওয়ান বর্তমানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে রয়েছেন। দীর্ঘদিন দেখা নেই আন্তর্জাতিক প্রাঙ্গণে। কিন্তু ২০১৩ সালে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে একাই ভারতীয় দলকে টেনে নিয়ে গিয়েছিলেন ফাইনালে।

শিখর ধাওয়ান ৫ ম্যাচে ৯০.৭৫ ব্যাটিং গড় নিয়ে মোট ৩৬৩ রান করেন। যার মধ্যে দুটি সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছিলেন। যার ফলে তিনি টুর্নামেন্ট সেরা হওয়ার খ্যাতি অর্জন করেন।

৪. বিরাট কোহলি: আইসিসি আয়োজিত টুর্ণামেন্টে একবার “ম্যান অব দ্যা সিরিজ” হওয়া যেখানে যে কোন ক্রিকেটারের জন্য স্বপ্ন হয়ে দাঁড়ায় সেখানে বিরাট কোহলি এই কৃতিত্ব দুবার অর্জন করেছেন।

পরপর দুটি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে “ম্যান অব দ্যা সিরিজ” নির্বাচিত হন তিনি। ২০১৪ বিশ্বকাপে তিনি ৬ ম্যাচে ১০৬.৩৩ গড়ে ৩১৯ রান করেন।

এরপর ২০১৬ সালে দুরন্ত ফর্মে থাকা বিরাট কোহলির ব্যাট থেকে ৫ ম্যাচে ২৭৩ রান আসে। যার ফলশ্রুতিতে আইসিসি আয়োজিত দুটি বিশ্বকাপে টুর্নামেন্ট সেরা নির্বাচিত হন কোহলি।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *