লিজেন্ডস লিগ খেলা হল না হরভজনের, জানালেন তার আসল কারণ

হরভজন সিং এর পুরো নাম হরভজন সিং প্লাহা। তিনি একজন ভারতীয় ক্রিকেটার। বিশেষত তিনি একজন বোলার। অফ স্পিন এর দ্বারা ২য় সর্বোচ্চ উইকেট পেয়েছেন তিনি, শ্রীলঙ্কান মুত্তিয়া মুরালিধরন এর পরেই তার স্থান ।

হরভজন সিং ভারতীয় ক্রিকেটে একটা অন্যতম বিখ্যাত নাম। সম্প্রতি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে তিনি অবসর গ্রহণ করেছেন। তারপরই শোনা যাচ্ছিল তিনি লিজেন্ডস ক্রিকেট লিগেকরোনা আক্রান্ত হলেন প্রাক্তন ক্রিকেটার হরভজন সিং। বর্তমানে তিনি বাড়িতেই নিভৃতবাসে আছেন। আজ টুইটারে একথা জানান তিনি।

যাঁরা তাঁর সংস্পর্শে এসেছিলেন তাঁদের সবাইকে করোনা পরীক্ষা করানোর পরামর্শ দেন তিনি। তবে তাঁর করোনার লক্ষ্মণ খুবই কম।চলতি লেজেন্ডস লিগ ক্রিকেটে ইন্ডিয়া মহারাজাসের হয়ে খেলার কথা ছিল হরভজনের। কিন্তু গতকাল এশিয়ান লায়নসের বিরুদ্ধে তাঁকে মাঠে দেখতে না পেয়ে ভক্তরা প্রশ্ন করতে থাকেন। এরপর আজ টুইটারে আক্রান্ত হওয়ার খবর জানান।

তিনি বর্তমানে বাড়িতেই আছেন। অন্যদিকে লেজেন্ডস লিগ ক্রিকেটে হচ্ছে ওমানে। হরভজন আর সেই লিগে অংশগ্রহণ করবেন কি না তা বলা যাচ্ছে না। ফলে হরভজনকে মাঠে দেখার আশা আপাতত স্থগিত রাখতে হচ্ছে ভক্তদের।হরভজন টুইটে লেখেন, ‘আমি কোভিড পজিটিভ।

অল্প লক্ষ্মণ আছে। আমি নিজে নিভৃতবাসে আছি এবং পর্যাপ্ত চিকিৎসা করাচ্ছি। আমি সবাইকে অনুরোধ করব যারা আমার সংস্পর্শে এসেছেন তাঁরা পরীক্ষা করান যত দ্রুত সম্ভব।’গত বছর নিজের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের সমাপ্তি ঘটান তিনি।

পাশাপাশি সবধরনের ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা করেন। ৭১১ আন্তর্জাতিক উইকেট নিয়ে তিনি ক্যারিয়ার শেষ করলেন। অনিল কুম্বলের পরে তিনিই ভারতের সবথেকে বেশি উইকেট শিকারি।

অবসর নিয়ে একেরপর এক ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন তিনি। ২০১৫ সালে টেস্টে শেষবার তিনি জাতীয় দলের জার্সি গায়ে চাপিয়েছিলেন। এৎপর ২০১৬ সালে এশিয়া ও টি-২০ বিশ্বকাপ ছিল তাঁর শেষ আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট।

এরপর পাঁচ বছর অপেক্ষা করেছেন তিনি জাতীয় দলে ডাক পাওয়ার। তা না পেয়ে অবশেষে ব্যাট প্যাড তুলে রাখার সিদ্ধান্ত নেন।২৩ বছরের ক্যারিয়ারে ১০৩ টেস্ট ম্যাচে তিনি নিয়েছেন ৪১৭টা উইকেট। একদিনের ক্রিকেটে নিয়েছেন ২৬৯টা উইকেট। টি-২০ তে নিয়েছেন ২৫টা উইকেট।

ভাজ্জি মনে করেন, তাঁকে সুযোগ দিলে তিনি টেস্টে আরও বেশি উইকেট পেতে পারতেন। তিনি মনে করেন, জাতীয় দল থেকে পর্যাপ্ত সমর্থন পেলে তিনি ৫০০ থেকে ৫৫০টা উইকেট পেতে পারতেন।

২০১১ বিশ্বকাপের পরে হরভজন সিং দলে অনিয়মিত হয়ে পড়েন। রবিচন্দ্রন অশ্বিনের হাতে ওঠে দলের স্পিনিং বিভাগের দায়িত্ব। ধীরে ধীরে নতুন মুখের ভিড়ে হারিয়ে যেতে থাকেন ভাজ্জি। যাতে মোটেই খুশি ছিলেন না তিনি। ৪০০ উইকেট নেওয়ার পর হঠাৎ করে তাঁকে বাদ দেওয়া ভারতীয় ক্রিকেটের জন্য দুঃখের খবর বলে মনে করেন হরভজন।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *