শেষের দিকে উমেশ যাদবের বিস্ফোরক তান্ডবে টিম ইন্ডিয়া বড় চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিল বাংলাদেশকে

বাংলাদেশ সফরে ৩ ম্যাচের একদিনের সিরিজে ভারত ১-২ ব্যবধানে হার মেনেছে। এবার লড়াই শুরু টেস্ট সিরিজের। চট্টগ্রামে সিরিজের প্রথম টেস্টর শুরুটা ভালো না হলেও প্রথম দিনের শেষে ঘুরে দাঁড়িয়েছে টিম ইন্ডিয়া। এখন দেখার যে দ্বিতীয় দিনে

দ্বিতীয় দিনে শ্রেয়স আইয়ারের সঙ্গে ব্যাট করতে নামেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন। বোলিং শুরু করেন তাইজুল। দিনের প্রথম বলেই ১ রান সংগ্রহ করেন শ্রেয়স। দিনের প্রথম ওভারে ১ রান ওঠে। ৯১ ওভার শেষে ভারতের স্কোর ৬ উইকেটে ২৭৯ রান।

প্রথম দিনে একবার বোল্ড হয়েও বেল না পড়ায় বেঁচে যান শ্রেয়স আইয়ার। তাঁর একটি ক্যাচ মিসও হয়। দ্বিতীয় দিনের শুরুতে ফের জীবনদান পেলেন শ্রেয়স। ৯৫.৫ ওভারে এবাদতের বলে এবার লিটন ক্যাচ ছাড়েন আইয়ারের। ৯৭ ওভার শেষে ভারতের স্কোর ৬ উইকেটে ২৯৩ রান।

পড়ে পাওয়া জীবনদান কাজে লাগাতে পারলেন না শ্রেয়স আইয়ার। ৯৭.৬ ওভারে এবাদত হোসেনের বলে বোল্ড হয়ে মাঠ ছাড়েন আইয়ার। ১৯২ বলে ৮৬ রান করেন তিনি। ভারত ২৯৩ রানে ৭ উইকেট হারায়। ব্যাট করতে নামেন কুলদীপ যাদব।

১০৩তম ওভারে প্রথম ইনিংসে ৩০০ রানের গণ্ডি ছুঁয়ে ফেলে ভারত।দ্বিতীয় দিনের লাঞ্চে ভারত তাদের প্রথম ইনিংসে ১২০ ওভার ব্যাট করে ৭ উইকেটের বিনিময়ে ৩৪৮ রান তুলে।লাঞ্চের পরে প্রথম ওভারেই দলগত ৩৫০ রানের গণ্ডি টপকে যায় টিম ইন্ডিয়া।২টি চার ও ২টি ছক্কার সাহায্যে ৯১ বলে ব্যাক্তিগত হাফ-সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন। ১২৩ ওভার শেষে টিম ইন্ডিয়ার স্কোর ৭ উইকেটে ৩৬১ রান।

১৩১.২ ওভারে মেহেদি হাসান মিরাজের বলে ৫৮ রান করা রবিচন্দ্রন অশ্বিনকে স্টাম্প আউট করেন নুরুল হাসান। ভারত ৩৮৫ রানে ৮ উইকেট হারায়। ব্যাট করতে নামেন উমেশ যাদব। তিনি মাঠে নেমে ওভারের চতুর্থ বলেই ছক্কা হাঁকান। ১৩২ ওভার শেষে ভারতের স্কোর ৮ উইকেটে ৩৯২ রান।

১৩২.৫ ওভারে তাইজুল ইসমালের বলে ৪০ রান করে এলবিডব্লিউ হয়ে মাঠ ছাড়েন কুলদীপ যাদব। ভারত ৩৯৩ রানে ৯ উইকেট হারায়। ব্যাট করতে নামেন মহম্মদ সিরাজ। তিনি মাঠে নেমে প্রথম বলেই চার মারেন।১৩৩.৫ ওভারে ৪ রান করা সিরাজকে ফেরান মিরাজ।ভারত সব কয়টি উইকেট হারিয়ে ৪০৪ রান সংগ্রহ করে। বাংলাদেশের সামনে এখন কঠিন চ্যালেন্স ছুড়ে দিল ভারত।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *