সেঞ্চুরিয়নে দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়ে নতুন ইতিহাস গড়লেন বিরাট কোহলি

সেঞ্চুরিয়ন টেস্ট জিততে পঞ্চম ও শেষদিনে ভারতের দরকার ছিল ৬ উইকেট। অন্যদিকে দক্ষিণ আফ্রিকার প্রয়োজন ছিল ২১১ রান। তবে শেষ হাসি হেসেছে ভারতই। প্রোটিয়াদের বিপক্ষে ১১৩ রানে জিতে তিন টেস্ট সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেছে সফরকারীরা। আর এই জয়ে ইতিহাস গড়েছেন অধিনায়ক কোহলি।

৩০৫ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে দ্বিতীয় ইনিংসে দ. আফ্রিকা গুটিয়ে গেছে ১৯১ রানে। স্বাগতিকেরা প্রথম ইনিংসে করে ১৯৭ রান। নিজেদের মাটিতে এ নিয়ে তৃতীয়বার দুই ইনিংসে দুইশ’ রানের নিচে অলআউট হল দ. আফ্রিকা।

সিরিজের প্রথম টেস্টে লোকেশ রাহুলের সেঞ্চুরিতে ভারত প্রথম ইনিংসে করে ৩২৭ রান। দ্বিতীয় ইনিংসে করে ১৭৪। দ. আফ্রিকার মাটিতে এটি তাদের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রানের জয়।

আর এক বর্ষপঞ্জিতে এশিয়ার বাইরে দ্বিতীয়বারের মতোন চার (ব্রিসবেন, লর্ডস, ওভাল ও সেঞ্চুরিয়ন) টেস্টে জয় পেল ভারত। এর আগে ২০১৮ সালে এক বর্ষপঞ্জিতে সমান (জোহানেসবার্গ, নটিংহাম, অ্যাডিলেড ও মেলবোর্ন) জয় পেয়েছিল তারা। বৃহস্পতিবার ৪ উইকেটে ৯৪ রান নিয়ে সেঞ্চুরিয়ন টেস্টের পঞ্চমদিন শুরু করে প্রোটিয়ারা।

অধিনায়ক-ওপেনার ডিন এলগার ব্যাটিংয়ে নামেন ৫২ রান নিয়ে। তার সঙ্গে আর ২৫ রান যোগ করতেই জসপ্রিত বুমরাহর এলবিডব্লিউর ফাঁদে পড়েন তিনি।

চতুর্থ উইকেট হিসেবে মোহাম্মদ সিরাজের হাতে বোল্ড হন উইকেটরক্ষক কুইন্টন ডি কক (২১)। এরপর জোড়া আঘাতে উইয়ান মুলদার (১) ও মার্কো জানসেনকে (১৩) ফিরিয়ে স্বাগতিকদের জয়ের স্বপ্ন ফিকে করে দেন মোহাম্মদ শামি।

দ. আফ্রিকার শেষ দুই উইকেট কাগিসো রাবাদা (০) ও লুঙ্গি এনগিদিকে (০) আউট করেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন। ৩৫ রানে অপরাজিত ছিলেন টেম্বা বাভুমা।

প্রথম ইনিংসে ৫ উইকেট নেওয়া শামি দ্বিতীয় ইনিংসে নিয়েছেন আরও ৩ উইকেট। ৩ উইকেট পেয়েছেন বুমরাহও। তবে প্রথম ইনিংসে ১২৩ রান করে ম্যাচ সেরা হয়েছেন রাহুল।

এদিকে এই জয়ে ভারতের প্রথম অধিনায়ক হিসেবে দুই বক্সিং ডে টেস্ট জয়ের ইতিহাস গড়েছেন বিরাট কোহলি। এর আগে ২০১৮ সালে অস্ট্রেলিয়া সফরে মেলবোর্নের পর দক্ষিণ আফ্রিকার সেঞ্চুরিয়ান, কোহলিই প্রথম ভারতীয় অধিনায়ক যিনি একাধিক বক্সিং ডে (২৬ ডিসেম্বর) টেস্ট ম্যাচ জিতলেন। আগেই পরিসংখ্যানের বিচারে অতীতের সকল ভারতীয় অধিনায়কের থেকে অধিক টেস্ট ম্যাচ জয়ের নজির রয়েছে কোহলির দখলে।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *