৫টি ওয়ানডে বিশ্বকাপের সেরা খেলোয়াড়ের তালিকায় দুই ভারতীয়

আইসিসি টুর্নামেন্টের সবচেয়ে বড় আসর ওয়ানডে বিশ্বকাপ আর এই মেগা লিগে প্রতিটি খেলোয়াড় দেশকে শিরোপা জেতানোর জন্য মরিয়া হয়ে ওঠেন। কেউ কাউকে এক ইঞ্চিও জমি ছাড়তে রাজি না।

তবে কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়ে প্রতিটি বিশ্বকাপ টুর্নামেন্টে একজন করে খেলোয়াড় ‘সেরা’ খেলোয়াড় হিসেবে ভূষিত হন। গত ৫টি ওয়ানডে বিশ্বকাপের সেরা খেলোয়াড়ের তালিকায় রয়েছেন দুজন ভারতীয়। এবার বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক:

□ ২০১৯ বিশ্বকাপ: রোহিত শর্মা (৬৪৮ রান)

ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত ২০১৯ আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপে রোহিত শর্মা ৫টি সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে বিশ্বরেকর্ড গড়েছেন। তার দুরন্ত ব্যাটিং পারফরম্যান্সে ভারতীয় দল সেমিফাইনালে উঠলেও দুর্ভাগ্যবশত নিউজিল্যান্ডের কাছে হেরে বিদায় নিতে হয়।

এই টুর্নামেন্টে রোহিত ৯ ম্যাচে ৮১.০০ গড়ে ৬৪৮ রান করেছিলেন, যার মধ্যে ছিল ৫টি সেঞ্চুরি ও ১টি হাফসেঞ্চুরি। তার সর্বোচ্চ স্কোর ১৪০ রান।

□ ২০১৫ বিশ্বকাপ: মার্টিন গাপটিল (৫৪৭ রান)

অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডে অনুষ্ঠিত ২০১৫ আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপে মার্টিন গাপটিল ২৩৭ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে এই টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত স্কোর করার রেকর্ড করেন।

দুর্দান্ত ফর্মে থাকা নিউজিল্যান্ড ফাইনালে ওঠে কিন্তু অস্ট্রেলিয়ার কাছে বিধ্বস্ত হয়েছিল। এই টুর্নামেন্টে গাপটিল ৯ ম্যাচে ৬৮.৩৭ গড়ে ৫৪৭ রান করেছিলেন, যার মধ্যে ছিল ২টি সেঞ্চুরি ও ১টি হাফসেঞ্চুরি।

□ ২০১১ বিশ্বকাপ: তিলকরত্নে দিলশান (৫০০ রান)

ভারতে অনুষ্ঠিত ২০১১ আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপে শ্রীলঙ্কা দলকে ফাইনালে নিয়ে যেতে তিলকরত্নে দিলশানের বড় ভূমিকা রয়েছে। একসময় বিশ্বকাপ জয়ের পরিস্থিতি তৈরি হলেও শেষ পর্যন্ত গৌতম গম্ভীর ও মহেন্দ্র সিং ধোনির জুটিতে বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্ন চুরমার হয়ে যায়।

এই টুর্নামেন্টে দিলশান ৯ ম্যাচে ৬২.৫০ গড়ে ৫০০ রান করেছিলেন, যার মধ্যে ছিল ২টি সেঞ্চুরি ও ২টি হাফসেঞ্চুরি। তার সর্বোচ্চ স্কোর ১৪৪ রান।

□ ২০০৭ বিশ্বকাপ: ম্যাথু হেডেন (৬৫৯ রান)

ওয়েস্ট ইন্ডিজে অনুষ্ঠিত ২০০৭ আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপের ফাইনালে অস্ট্রেলিয়া ও শ্রীলঙ্কা দল মুখোমুখি হয়েছিল। কিন্তু ভারতীয় দলকে ফেভারিট হিসেবে ধরা হলেও গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নেয়।

অস্ট্রেলিয়ার হয়ে প্রতিটি ম্যাচেই দুরন্ত পারফরম্যান্স করেন বাঁহাতি ওপেনার ম্যাথু হেডেন এবং দলকে বিশ্বকাপ জয়ের শিরোপা দেন। এই টুর্নামেন্টে হেডেন ১০টি ম্যাচে ৭৩.২২ গড়ে ৬৫৯ রান করেছিলেন, যার মধ্যে ছিল ৩টি সেঞ্চুরি ও ১টি হাফসেঞ্চুরি। তার সর্বোচ্চ স্কোর ১৫৮ রান।

□ ২০০৩ বিশ্বকাপ: শচীন টেন্ডুলকার (৬৭৩ রান)

দক্ষিণ আফ্রিকায় অনুষ্ঠিত ২০০৩ আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপে শচীন টেন্ডুলকার স্বপ্নের ফর্মে ছিলেন এবং প্রতিটি ম্যাচেই তিনি রান করেছেন। তার দুরন্ত পারফরম্যান্সে ভারতীয় দল ফাইনালে উঠে এবং অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি হয়।

কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে ফাইনালে তার ব্যাট থেকে মাত্র ৪ রান আসে এবং ভারতীয় দল বহুকাঙ্খিত বিশ্বকাপ হাতছাড়া করে। এই টুর্নামেন্টের শচীন ১১টি ম্যাচে ৬১.১৮ গড়ে ৬৭৩ রান করেছিলেন, যার মধ্যে ছিল ১টি সেঞ্চুরি ও ৬টি হাফসেঞ্চুরি। তার সর্বোচ্চ স্কোর ১৫২ রান।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *